আহমেদ, শামসুদ্দীন২


আহমেদ, শামসুদ্দীন২ (১৮৮৯-১৯৬৯)  রাজনীতিবিদ ও কৃষক নেতা। কুষ্টিয়া জেলার (তদানীন্তন নদীয়া) কুমারখালি থানার অন্তর্গত সুলতানপুর গ্রামে তাঁর জন্ম। ১৯১০ সালে শামসুদ্দীন আহমেদ হুগলি কলেজিয়েট স্কুল থেকে ম্যাট্রিকুলেশন পরীক্ষা পাস করেন এবং কলকাতার প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে গ্র্যাজুয়েট হন। তিনি ১৯১৬ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম.এ ও বি.এল ডিগ্রি লাভ করেন। তিনি ১৯১৭ সালে কৃষ্ণনগর জেলা কোর্টে ওকালতি শুরু করেন। ১৯১৯ সাল থেকে চিত্তরঞ্জন দাশ এর সহকারী হিসেবে কলকাতা হাইকোর্টে আইন ব্যবসায়ে অবতীর্ণ হন।

সি.আর দাশের একজন একনিষ্ঠ অনুসারী শামসুদ্দীন আহমেদ ১৯২১ থেকে ১৯২৫ সাল পর্যন্ত বঙ্গীয় প্রাদেশিক কংগ্রেস কমিটির সেক্রেটারি ছিলেন এবং কংগ্রেস সদস্য হিসেবে তিনি ১৯২৭ সালে বঙ্গীয় আইন পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯২৯ সালে তিনি কংগ্রেস ত্যাগ করে ‘নিখিল বঙ্গ প্রজা সমিতি’তে যোগ দেন এবং এর অন্যতম যুগ্ম-সম্পাদক হন। তিনি ১৯৩৩ থেকে ১৯৩৬ সাল পর্যন্ত কলকাতা কর্পোরেশনএর নির্বাচিত কমিশনার ছিলেন। কৃষক প্রজা পার্টির প্রার্থী হিসেবে তিনি ১৯৩৭ সালে বঙ্গীয় আইন পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি  কৃষক প্রজা পার্টির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা এবং ১৯৪৪ সালে মুসলিম লীগ-এ যোগ দেওয়ার পূর্ব পর্যন্ত ফজলুল হক মন্ত্রিসভার সদস্য ছিলেন। তিনি ১৯৪৬ থেকে ১৯৪৭ সালের আগস্ট মাস পর্যন্ত সময়ে সোহরাওয়ার্দী মন্ত্রিসভারও সদস্য ছিলেন। ১৯৪৭ সালের পর তিনি বার্মায় পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত ছিলেন।  [রাণা রাজ্জাক]