হেয়াত মামুদ


হেয়াত মামুদ (১৬৯৩-১৭৬০)  আধুনিকপূর্ব যুগের বাংলা ভাষার কবি। রংপুর জেলার ঘোড়াঘাটের অধীন ঝাড়বিশিলা গ্রামে তাঁর জন্ম। পিতা শাহ কবীর ছিলেন ঘোড়াঘাট সরকারের দেওয়ান এবং তিনি নিজে ছিলেন ওই সরকারের কাজী।

হেয়াত মামুদের কবিপ্রতিভা পৈতৃকসূত্রে প্রাপ্ত কারণ তাঁর পিতাও ছিলেন একজন কবি। রাজকার্যের অবসরে হেয়াত মামুদ তাঁর কবিপ্রতিভার বিকাশ ঘটান। তিনি মোট চারখানি কাব্য রচনা করেন:  জঙ্গনামা (১৭২৩), সর্বভেদবাণী (১৭৩২), হিতজ্ঞানবাণী (১৭৫৩) ও আম্বিয়াবাণী (১৭৫৮)। জঙ্গনামায় কারবালার বিষাদময় কাহিনীর বিবরণ আছে; ফারসি কাব্যের অনুসরণে এটি রচিত। সর্বভেদবাণী নীতিকথামূলক কাব্য। হেয়াত মামুদ সংস্কৃত পঞ্চতন্ত্র কাব্যের ফারসি অনুবাদ মফরেহুল-কুলুব থেকে এর উপাদান সংগ্রহ করেন। হিতজ্ঞানবাণীতে ইসলামের ধর্মীয় রীতিনীতির বিবরণ আছে; এতে সুফিতত্ত্বের কথাও আছে। আম্বিয়াবাণীতে হযরত আদম (আ.) থেকে  হযরত মুহাম্মাদ (স.) পর্যন্ত নবী-পরম্পরায় জীবনবৃত্তান্ত বিবৃত হয়েছে। এটি বিশাল কাব্য এবং হেয়াত মামুদের শ্রেষ্ঠ রচনা। কবির ভাষা সহজ, মার্জিত ও দোভাষীর প্রভাবমুক্ত। মধ্যযুগের কাব্যধারার তিনিই শেষ প্রতিনিধি।  [ওয়াকিল আহমদ]