ওর্ম, রবার্ট


রবার্ট ওর্ম

ওর্ম, রবার্ট (১৭২৮-১৮০১)  ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির একজন ঐতিহাসিক। তিনি হ্যারোতে শিক্ষালাভ করেন। অভিধান রচয়িতা ও পন্ডিত ড. জনসনের তিনি ছিলেন একজন ঘনিষ্ঠ বন্ধু। রবার্ট ওর্ম-এর ইচ্ছা ছিল ইস্ট ইন্ডিজের ঘটনাবলি লিপিবদ্ধ করা যাতে ব্রিটিশ জনসাধারণ অঞ্চলটির বিষয়াবলি সম্পর্কে অবগত হতে পারে। এ উদ্দেশ্য নিয়ে, তিনি ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির একজন ‘লেখক’ হিসেবে ১৭৪২ সালে কলকাতায় আসেন। এ কথা তিনি তাঁর বইয়ে উল্লেখ করেছেন। তাঁর শিক্ষা এবং পান্ডিত্য বিবেচনা করে কোর্ট অব ডাইরেক্টর্স ওর্মকে মাদ্রাজ কাউন্সিলের একজন সদস্য নিয়োগ করে (১৭৫৪-৫৮)। রবার্ট ক্লাইভের অন্তরঙ্গ বন্ধু, ওর্মই মাদ্রাজ কাউন্সিলকে বাংলায় সামরিক অভিযানে ক্লাইভকে সেনাপতি করতে প্রভাবিত করেন। কৃতজ্ঞ ক্লাইভ, ক্ষমতায় থাকাকালে সাম্প্রতিক বছরগুলিতে সংঘটিত রাজনৈতিক পরিবর্তনসমূহের আলোকে অঞ্চলটির একটি ইতিহাস রচনার জন্য মূলত তাঁর বন্ধুকে কলকাতায় নিয়ে আসেন।

মাদ্রাজ এবং কলকাতায় অবস্থানকালে ওর্ম স্থানীয় ভাষায় এবং ফারসিতে লভ্য উপাদানসমূহ সংগ্রহ করেন এবং সেগুলির উপর ভিত্তি করে A History of the Military Transactions of the British nation in Indostan from the year 1747 নামে গবেষণামূলক এক সুদীর্ঘ গ্রন্থ রচনা করেন। ১৭৬৩ সালে প্রকাশিত গ্রন্থটি ওর্মকে প্রথম প্রাচ্যবিদ রূপে খ্যাতি প্রদান করে। ১৭৮২ সালে তিনি Historical Fragments of the Mogul Empire, of the Moratoes, and of the English Concerns of Indostan from the year 1659 নামে আর একটি সামরিক ইতিহাস প্রকাশ করেন।

ওর্মই নিশ্চিতভাবে পাশ্চাত্যে প্রাচ্য চর্চার সূচনা করেন। ওর্মের ভারত সম্পর্কিত রচনাসমূহ প্রাচ্য সম্পর্কে পাশ্চাত্যের সমকালীন উপলব্ধি তুলে ধরেছে। তাঁর মতে, পাশ্চাত্যের তুলনায় ভারতের সভ্যতা ছিল নিম্নমানের। ইঙ্গ-ভারতীয় ইতিহাসতত্ত্বে এ উপলব্ধি ঔপনিবেশিক শাসনের শেষ পর্যন্ত বলবৎ ছিল। তাঁর মতে, ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির সামরিক বিজয়সমূহ এমন এক শাসনের প্রবর্তন করে যাতে বিজয়ী এবং বিজিত উভয়েই লাভবান হয়। ব্রিটিশ প্রাধান্য অক্ষুণ্ণ রাখার জন্য একে অবশ্যই টিকিয়ে রাখতে হবে। ১৮০১ সালের ১৩ জানুয়ারি রবার্ট ওর্ম এর মৃত্যু হয়। [সিরাজুল ইসলাম]