পূর্ব পাকিস্তান রেনেসাঁ সোসাইটি


পূর্ব পাকিস্তান রেনেসাঁ সোসাইটি  মুসলমানদের স্বার্থ সংরক্ষণ ও তাদের জন্য পৃথক রাষ্ট্রের দাবিতে গঠিত একটি সংগঠন। ১৯৪২ সালের ৩০ আগস্ট কলকাতার দৈনিক  আজাদ পত্রিকার অফিসে সাহিত্যিক ও ছাত্রদের এক ঘরোয়া বৈঠকে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। এ সোসাইটি প্রতিষ্ঠার পটভূমিতে ছিল ১৯৪০ সালে পাকিস্তান রাষ্ট্র গঠনের  লাহোর প্রস্তাব ও তৎপরবর্তী  পাকিস্তান আন্দোলন। রেনেসাঁ সোসাইটির শুরুতে ১১জন প্রতিষ্ঠাতা-সদস্যের মধ্যে ছিলেন আবুল কালাম শামসুদ্দীন,  হবীবুল্লাহ বাহার চৌধুরী, মুজিবুর রহমান খাঁ, মোহাম্মদ খায়রুল আনাম খাঁ প্রমুখ।  আবুল কালাম শামসুদ্দীন ছিলেন সভাপতি এবং  মুজীবুর রহমান খাঁ আহবায়ক।

সোসাইটির অন্যতম মূলনীতি ছিল পাকিস্তানি চেতনার সাহিত্যিক রূপায়ণ। এ উদ্দেশ্যে বৈঠক, বক্তৃতা, বিতর্ক, রচনাপাঠ, আলোচনা, গবেষণা, পুস্তকাদি প্রচার প্রভৃতির আয়োজন করা হতো। মুসলমানদের ধর্ম, সমাজ, ঐতিহ্য ও জীবনকে উপাদান হিসেবে গ্রহণ করে এবং আরবি-ফারসি-উর্দু শব্দ মিশ্রিত বাংলা ভাষাকে মাধ্যম করে সাহিত্য রচনা করা হতো। রেনেসাঁ সোসাইটির প্রবক্তারা পূর্ব পাকিস্তানকে একটি স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে দেখতে চেয়েছিলেন।

সোসাইটির সাপ্তাহিক আসরে নিয়মিত প্রবন্ধপাঠ ও আলোচনার ব্যবস্থা ছিল। কোনো এক আসরে মানবতাবাদী নেতা  মানবেন্দ্রনাথ রায় ‘পাকিস্তান ও গণতন্ত্র’ বিষয়ে বক্তৃতা করেন। তিনি তাঁর বক্তৃতায় ভারতীয় মুসলমানদের আত্মনিয়ন্ত্রণাধিকারের অনিবার্যতার কথা বলেন।

১৯৪৪ সালের জুলাই মাসে সোসাইটি ইসলামিয়া কলেজে প্রথম বার্ষিক সম্মেলন করে। তাতে সাহিত্য-সংস্কৃতিবিষয়ক মোট ১১টি শাখায় প্রবন্ধপাঠ ও আলোচনার ব্যবস্থা করা হয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে খাজা নাজিমুদ্দীন, খাজা শাহাবুদ্দীন, হোসেন শহীদ সুহরাওয়ার্দী, হাসান সুহরাওয়ার্দী, নুরুল আমীন, মোহাম্মদ আকরম খাঁ, এ.কে ফজলুল হক, আবুল কাশেম, তমিজুদ্দীন খাঁ, শাহাদৎ হোসেন, গোলাম মোস্তফা, এস ওয়াজেদ আলী, আবু জাফর শামসুদ্দীন, আবুল হোসেন, গোলাম কুদ্দুস, সুভাষ মুখোপাধ্যায়, গোপাল হালদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। আবুল মনসুর আহমদ তাঁর প্রবন্ধে পূর্ব পাকিস্তানের রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক স্বাধীনতার কথা খুব গুরুত্বের সঙ্গে তুলে ধরেন।

সোসাইটির আহবায়ক মুজিবুর রহমান খাঁ ইসলামিয়া কলেজের অর্থনীতির অধ্যাপক ড. এম সাদেকের সহযোগিতায় Eastern Pakistan: Its Population, Delimitation and Economics (সেপ্টেম্বর, ১৯৪৪) নামে একটি পুস্তিকা প্রকাশ করেন। তাতে তাঁদের কল্পিত স্বাধীন পূর্ব পাকিস্তান রাষ্ট্রের সরকার, অর্থনৈতিক উৎস, জনশক্তি, ভৌগোলিক সীমানা, নিরাপত্তা ইত্যাদি সম্পর্কে বিবরণ ও মানচিত্র প্রকাশ করা হয়। ১৯৪৭ সালে বাংলা বিভাগ ও ভারত-পাকিস্তানের স্বাধীনতার মধ্য দিয়ে পূর্ব পাকিস্তান গঠিত হয় বটে, কিন্তু স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে নয়। অন্যদিকে বাংলা বিভাগের পরপরই পূর্ব পাকিস্তান রেনেসাঁ সোসাইটির প্রয়োজনীয়তা ফুরিয়ে যায় এবং দেশ ভাগের কারণে হিন্দু-মুসলমানদের স্থান ত্যাগের ফলে অচিরেই এর অস্তিত্বও লোপ পায়।  [ওয়াকিল আহমদ]