পরাগল খান মসজিদ ও দিঘি


পরাগল খান মসজিদ ও দিঘি পরাগলের দিঘি বাংলার স্বাধীন সুলতানি আমলে খননকৃত দিঘিসমূহের মধ্যে দ্বিতীয় বৃহত্তম দিঘি বলে বিবেচিত। এটি চট্টগ্রাম জেলার মিরসরাই উপজেলার অন্তর্গত পরাগলপুর মৌজার মধ্যে অবস্থিত এবং এটি প্রাচীন নিদর্শনাদির মধ্যে কৌতূহলোদ্দীপক একটি নিদর্শন। পরাগলপুরে আলাউদ্দীন হোসেন শাহ এর সামরিক সেনাপতি পরাগল খান এর রাজনৈতিক সদর দফতর ছিল। দিঘিটি এখনও ব্যবহূত হচ্ছে এবং সুষ্ঠুভাবে এর রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়। ২৯.৬০ একর জমির উপর খননকৃত এ দিঘির পরিমাপ দৈর্ঘ্যে ৪৩৭.৩৯ মিটার এবং প্রস্থে ২৭১.৫৮ মিটার।

পরাগল খানের মসজিদটি বর্তমানে ধ্বংসপ্রাপ্ত। দিঘির পূর্বতীরের এক বিস্তৃত অংশ ছোট ছোট ইটের টুকরা দ্বারা আবৃত। দিঘি থেকে উত্থিত সিঁড়ির ধাপগুলি বিলীন হয়ে ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। মৌজার সংশোধিত জরিপ মানচিত্রে দেখা যায় যে, সেখানে তিনটি ইমারত আছে। এগুলির একটি দিঘির পূর্ব তীরে এবং অন্যদুটি দিঘির দক্ষিণ তীরে যা এখন আর দেখা যায় না। এ এলাকার অশীতিপর বৃদ্ধগণ স্পষ্ট করে বলেন যে, তারা তাদের যৌবনকালে দিঘির পূর্বতীরের খুব কাছেই একটি মসজিদের ধ্বংসাবশেষ দেখেছেন।  [শামসুল হোসেন]