কলমাকান্দা উপজেলা


কলমাকান্দা উপজেলা (নেত্রকোনা জেলা)  আয়তন: ৩৭৭.৪১ বর্গ কিমি। অবস্থান: ২৪°৫৬´ থেকে ২৫°১১´ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৯০°৪৪´ থেকে ৯০°৫৮´পূর্ব দ্রাঘিমাংশ। সীমানা: উত্তরে ভারতের মেঘালয় রাজ্য, দক্ষিণে বারহাট্টানেত্রকোনা সদর উপজেলা, পূর্বে ধর্মপাশা উপজেলা, পশ্চিমে দুর্গাপুর (নেত্রকোনা) উপজেলা।

জনসংখ্যা ২৩৪৩৯৮; পুরুষ ১২০২৫৫, মহিলা ১১৪১৪৩। মুসলিম ১৯৫৯৯৭, হিন্দু ২৯৪৫৪, বৌদ্ধ ৮৬৭৭ এবং অন্যান্য ২৭০। এ উপজেলায় গারো, হাজং, হদি, বানাই প্রভৃতি আদিবাসী জনগোষ্ঠীর বসবাস আছে।

জলাশয় প্রধান নদী: সোমেশ্বরী ও গুনাই নদী। পাকাটা বিল, বাহার বিল উল্লেখযোগ্য।

প্রশাসন কলমাকান্দা থানা গঠিত হয় ১৯৪১ সালে এবং থানাকে উপজেলায় রূপান্তর করা হয় ১৯৮৩ সালে।

উপজেলা
পৌরসভা ইউনিয়ন মৌজা গ্রাম জনসংখ্যা ঘনত্ব (প্রতি বর্গ কিমি) শিক্ষার হার (%)
শহর গ্রাম শহর গ্রাম
- ১৭৯ ৩৪৩ ১০৯৩৬ ২২৩৪৬২ ৬২১ ৪৬.২ ২৯.৬৩
উপজেলা শহর
আয়তন (বর্গ কিমি) মৌজা লোকসংখ্যা ঘনত্ব (প্রতি বর্গ কিমি) শিক্ষার হার (%)
৮.৩৭ ১০৯৩৬ ১৩০৭ ৪৬.২
ইউনিয়ন
ইউনিয়নের নাম ও জিও কোড আয়তন (একর) লোকসংখ্যা শিক্ষার হার (%)
পুরুষ মহিলা
কলমাকান্দা ৩৫ ১৫৫৩২ ২০৩৭০ ১৯৩৩৯ ৩৪.৯৪
কৈলাটি ২৩ ১৩১৯৯ ১৮২৫৯ ১৭১১২ ২৯.১১
খরনৈ ৪৭ ১০৩৪৩ ১২৫০৮ ১১৯৩৪ ২৭.৮৬
নাজিরপুর ৭১ ১১২৯৩ ১৭৬৩২ ১৬৩৯২ ৩০.৪৬
পোগলা ৮৩ ১০৯১৮ ১৪০৩৫ ১৩১০০ ৩৩.৪৪
বড়কারপান ১১ ৯১৩১ ৮৫৬৯ ৭৯৪৩ ৩৪.১১
রংছাতি ৯৫ ১৪০২৫ ১৮৩৭৬ ১৮১২৭ ২১.৮১
লেঙ্গুরা ৫৯ ৮৫২৬ ১০৫০৬ ১০১৯৬ ৩১.৫৬

সূত্র আদমশুমারি রিপোর্ট ২০০১, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো।

প্রাচীন নিদর্শনাদি ও প্রত্নসম্পদ মনাই শাহের মাযার (বটতলা)।

মুক্তিযুদ্ধের ঘটনাবলি ১৯৭১ সালের ২৬ জুলাই এ উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের তিন রাস্তার মিলনস্থলে পাকবাহিনীর সঙ্গে  মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মুখ লড়াই হয়। উক্ত লড়াইয়ে ৭ জন মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হন।

KalmakandaUpazila.jpg

শিক্ষার হার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড় হার ৩০.২%; পুরুষ ৩২.৯%, মহিলা ২৭.৩%। উল্লেখযোগ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান: কলমাকান্দা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় (১৯৪২), কলমাকান্দা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, লেঙ্গুরা উচ্চ বিদ্যালয়, রংছাতি উচ্চ বিদ্যালয়।

সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান লাইব্রেরি ১, ক্লাব ২২, সিনেমা হল ২, খেলার মাঠ ৬।

দর্শনীয় স্থান ৭ জন শহীদ মুক্তিযোদ্ধার সমাধি (লেঙ্গুরা)।

জনগোষ্ঠীর আয়ের প্রধান উৎস কৃষি ৭৭.৩৩%, অকৃষি শ্রমিক ৪.৩৭%, শিল্প ০.৩৮%, ব্যবসা ৮.৪৫%, পরিবহণ ও যোগাযোগ ০.৬৭%, চাকরি ২.১৫%, নির্মাণ ০.৫২%, ধর্মীয় সেবা ০.২৫%, রেন্ট অ্যান্ড রেমিটেন্স ০.২১% এবং অন্যান্য ৫.৬৭%।

কৃষিভূমির মালিকানা ভূমিমালিক ৬১.৮৮%, ভূমিহীন ৩৮.১২%। শহরে ৪৮.৬৯% এবং গ্রামে ৬২.৪৯% পরিবারের কৃষিজমি রয়েছে।

প্রধান কৃষি ফসল ধান, গম, সরিষা।

বিলুপ্ত বা বিলুপ্তপ্রায় ফসলাদি পাট, ডাল।

প্রধান ফল-ফলাদিব আম, কাঁঠাল, কলা, জাম।

মৎস্য, গবাদিপশু ও হাঁস-মুরগির খামার এ উপজেলায় মৎস্য ও হাঁস-মুরগির খামার রয়েছে।

যোগাযোগ বিশেষত্ব পাকারাস্তা ৫২.০৭ কিমি, আধাপাকা রাস্তা ১৯ কিমি, কাঁচারাস্তা ৩৪২.৪৭ কিমি; নদীপথ ১১ নটিক্যাল মাইল।

বিলুপ্ত বা বিলুপ্তপ্রায় সনাতন বাহন পালকি, গরু, ঘোড়া ও মহিষের গাড়ি।

শিল্প ও কলকারখানা বরফ কল, ময়দা কল, করাত কল, তেল কল, ছাপাখানা, ওয়েল্ডিং কারখানা।

কুটিরশিল্প  স্বর্ণশিল্প, মৃৎশিল্প, লৌহশিল্প, সূচিশিল্প, কাঠের কাজ।

হাটবাজার ও মেলা নাজিরপুর বাজার, কলমাকান্দা বাজার, পাঁচগাঁও বাজার, গোবিন্দপুর বাজার, লেঙ্গুরা বাজার ও ডাইয়ারকান্দা বাজার এবং চেমনীল মেলা ও কমলাকান্দা মেলা উল্লেখযোগ্য।

প্রধান রপ্তানিদ্রব্য   ধান।

বিদ্যুৎ ব্যবহার এ উপজেলার সবক’টি ইউনিয়ন পল্লিবিদ্যুতায়ন কর্মসূচির আওতাধীন। তবে ১০.৬৬% পরিবারের বিদ্যুৎ ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে।

পানীয়জলের উৎস নলকূপ ৭৬.১৯%, ট্যাপ ১.০১%, পুকুর ৪.২৪% এবং অন্যান্য ১৮.৫৬%। এ উপজেলার অগভীর নলকূপের পানিতে মাত্রাতিরিক্ত আর্সেনিকের উপস্থিতি প্রমাণিত হয়েছে।

স্যানিটেশন ব্যবস্থা এ উপজেলার ১২.২১% (গ্রামে ১১.৭১% ও শহরে ২৩.১৮%) পরিবার স্বাস্থ্যকর এবং ৬৩.৩৮% (গ্রামে ৬৩.৩৩ % ও শহরে ৬৪.৫৩%) পরিবার অস্বাস্থ্যকর ল্যাট্রিন ব্যবহার করে। ২৪.৪১% পরিবারের কোনো ল্যাট্রিন সুবিধা নেই।

স্বাস্থ্যকেন্দ্র উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ১, উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র ২, পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্র ৮, যক্ষ্মা ও কুষ্ঠরোগ নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র ১।

প্রাকৃতিক দুর্যোগ ১৯৮৮ ও ২০০৪ সালের বন্যায় উপজেলার অনেক ঘরবাড়ি, গবাদিপশু ও ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়।

এনজিও ব্র্যাক, কারিতাস, প্রশিকা, আশা। [সৈয়দ মারুফুজ্জামান]

তথ্যসূত্র আদমশুমারি রিপোর্ট ২০০১, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো; কলমাকান্দা উপজেলা সাংস্কৃতিক সমীক্ষা প্রতিবেদন ২০০৭।