বেঙ্গলি, দি

NasirkhanBot (আলোচনা | অবদান) কর্তৃক ০৪:৩১, ৫ মে ২০১৪ তারিখে সংশোধিত সংস্করণ (Added Ennglish article link)
(পরিবর্তন) ← পূর্বের সংস্করণ | সর্বশেষ সংস্করণ (পরিবর্তন) | পরবর্তী সংস্করণ → (পরিবর্তন)

বেঙ্গলি, দি  ১৮৬২ থেকে ১৯৩১ সাল পর্যন্ত কলকাতা থেকে প্রকাশিত ইংরেজি সংবাদপত্র। দৈনিক সংবাদপত্র হিসেবে যাত্রা শুরু করে পরবর্তীকালে এটি সাপ্তাহিকীতে পরিণত হয়। বেঙ্গলিকে অনেক বিখ্যাত সম্পাদক সমৃদ্ধ করেছেন, যাঁদের মধ্যে এর প্রতিষ্ঠাতা গিরীশচন্দ্র ঘোষসুরেন্দ্রনাথ ব্যানার্জী অন্তর্ভুক্ত ছিলেন। ১৯৩১ সালে ক্যালকাটা ইভিনিং নিউজ নামে পত্রিকাটির শহুরে সান্ধ্যকালীন সংখ্যা বের হওয়া শুরু হয় তবে মফস্বল সংখ্যা বেঙ্গলি নামেই তার পরিচিতি বজায় রাখে। এ দুধরনের সংখ্যা ১৯৩২ সাল থেকে একত্রিত হয়ে একটি পত্রিকায় রূপ পরিগ্রহ করে এবং এর নতুন নাম রাখা হয় স্টার অব ইন্ডিয়া।

যাত্রা শুরু থেকে বেঙ্গলি ভারতীয় জাতীয়তাবাদী আন্দোলনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ হিসেবে কাজ করেছে। অ্যাংলো-ভারতীয় সম্প্রদায়ের বাড়াবাড়ি, ইলবার্ট বিল, জাতিগত সমাজসমূহের সংরক্ষণ, ভূমিসন্বন্ধীয় সম্পর্কাবলি, দুর্ভিক্ষ ও সমকালীন সামাজিক আন্দোলনসমূহ সম্পর্কে এর সুস্পষ্ট মতামত ঐ সময়কার জনমতকে প্রবলভাবে প্রভাবিত করে। সুরেন্দ্রনাথ ব্যানার্জীর সম্পাদনায় পত্রিকাটি উনিশ শতকের শেষদিকে ও বিশ শতকের প্রথমদিকে সর্বোচ্চ প্রচারিত সাপ্তাহিকীর মর্যাদা লাভ করে। কিন্তু সুরাট সম্মেলনের (১৯০৭) পর কংগ্রেসে ফাটল সৃষ্টি হলে পত্রিকাটি বিভক্ত কংগ্রেসের মধ্যপন্থীদের প্রতিনিধিত্ব করতে থাকে। স্বদেশী ও সন্ত্রাসবাদী আন্দোলনসমূহ ও কংগ্রেসের চরমপন্থী রাজনীতির ব্যাপারে পত্রিকাটির মধ্যপন্থী অবস্থান গ্রহণের ফলে এর জনপ্রিয়তা বহুল পরিমাণে হ্রাস পায়। সুরেন্দ্রনাথ ব্যানার্জীর মৃত্যু (১৯২৫) পত্রিকাটিকে আরও দুর্বল করে দেয় এবং শেষ পর্যন্ত ১৯৩১ সালে এর প্রকাশনা বন্ধ হয়ে যায়।  [অভিজিৎ দত্ত]