বিশ্বাস, আব্দুর রহমান

Mukbil (আলোচনা | অবদান) কর্তৃক ১৬:৪৩, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ তারিখে সংশোধিত সংস্করণ
(পরিবর্তন) ← পূর্বের সংস্করণ | সর্বশেষ সংস্করণ (পরিবর্তন) | পরবর্তী সংস্করণ → (পরিবর্তন)
আব্দুর রহমান বিশ্বাস

বিশ্বাস, আব্দুর রহমান (১৯২৬- ) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি (১৯৯১-১৯৯৬)। দেশে সংসদীয় শাসন-ব্যবস্থা পুনঃপ্রবর্তনের পর ১৯৯১ সালের ৮ অক্টোবর তিনি জাতীয় সংসদ কর্তৃক বাংলাদেশ সরকারের রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন।

বরিশাল জেলার শায়েস্তাবাদে ১ সেপ্টেম্বর ১৯২৬ সালে আব্দুর রহমান বিশ্বাসের জন্ম। বরিশাল শহরেই তিনি স্কুল ও কলেজ জীবন শেষ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন এবং সেখান থেকে ইতিহাসে স্নাতক (সম্মান), এম. এ ডিগ্রী লাভ করেন। আব্দুর রহমান বিশ্বাস ১৯৫০-এর দশকে আইন পেশায় যোগদান করেন।

পেশাগত জীবনের শুরুতে আব্দুর রহমান বিশ্বাস স্থানীয় সমবায় ব্যাংকের সভাপতি ছিলেন। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্থাপনে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে তিনি শিক্ষা বিস্তারে অবদান রাখেন। সমবায় আন্দোলন ও সমাজকর্মে অবদানের জন্য পাকিস্তান সরকার ১৯৫৮ সালে তাঁকে ‘veteran social worker’ সম্মাননা প্রদান করে।

আব্দুর রহমান বিশ্বাস ১৯৬২ এবং ১৯৬৫ সালে পূর্ব পাকিস্তান আইন সভার সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি ১৯৬৫ থেকে ১৯৬৯ পর্যন্ত পূর্ব পাকিস্তানের সংসদীয় সচিব হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৬৭ সালে তিনি পাকিস্তান প্রতিনিধিদলের সদস্য হিসেবে জাতিসংঘের ২২তম অধিবেশনে যোগদান করেন। মুক্তিযুদ্ধ কালে তাঁর আনুগত্য ছিল পাকিস্তান সরকারের প্রতি, কিন্তু তবু তিনি স্থানীয়ভাবে ছিলেন বেশ জনপ্রিয়। তিনি ১৯৭৪ এবং ১৯৭৬ সালে দুবার বরিশাল বার সমিতির সভাপতি নির্বাচিত হন। ১৯৭৭ সালে তিনি বরিশাল পৌরসভার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ১৯৭৯ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি বরিশাল থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৭৯-৮০ সালে তিনি রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান এর মন্ত্রিসভায় পাট মন্ত্রী এবং ১৯৮১-৮২ সালে বিচারপতি আব্দুস সাত্তারের মন্ত্রিসভায় স্বাস্থ্য মন্ত্রীর পদ অলংকৃত করেন।

রাষ্ট্রপতি হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার পূর্বে আব্দুর রহমান বিশ্বাস ১৯৯১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে অনুষ্ঠিত পঞ্চম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এরপর ৪ এপ্রিল ১৯৯১ তিনি জাতীয় সংসদের স্পিকার নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯১ সালে তিনি বাংলাদেশের  রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন এবং  ১৯৯৬ সালের ৮ অক্টোবর তাঁর মেয়াদ শেষ হয়।  [হেলাল উদ্দিন আহমেদ]