বাংলাদেশ দর্শন সমিতি

NasirkhanBot (আলোচনা | অবদান) কর্তৃক ০৪:২৩, ৫ মে ২০১৪ তারিখে সংশোধিত সংস্করণ (Added Ennglish article link)
(পরিবর্তন) ← পূর্বের সংস্করণ | সর্বশেষ সংস্করণ (পরিবর্তন) | পরবর্তী সংস্করণ → (পরিবর্তন)

বাংলাদেশ দর্শন সমিতি  দর্শনবিষয়ক গবেষণা এবং নৈতিকতা ও মানবতাবাদের প্রচার ও প্রসারের লক্ষ্যে  ১৯৭২ সালে ঢাকায় প্রতিষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশের সামাজিক ও জাতীয় অগ্রগতির পক্ষে সহায়ক নীতিবোধ ও মূল্যবোধ প্রভাবিত একটি সুষ্ঠু ও সমষ্টিগত জীবনের রূপরেখা প্রণয়ন ছিল এর মূল প্রেরণা।

১৯৭২ সালের ৫ জানুয়ারি পাকিস্তান ফিলোসফিক্যাল কংগ্রেসের ঢাকাস্থ সদস্যদের একটি সভা কোষাধ্যক্ষ এবং ভারপ্রাপ্ত সভাপতি দেওয়ান মোহাম্মদ আজরফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এ সভায় ১৫ সদস্যের একটি সাংগঠনিক কমিটি নিয়ে বাংলাদেশ দর্শন সমিতি আত্মপ্রকাশ করে। প্রথম সভাপতি ও কোষাধ্যক্ষ হন  দেওয়ান মোহাম্মদ আজরফ এবং সাধারণ সম্পাদক সাইয়েদ আবদুল হাই।

পরের বছর ২৮ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত প্রথম সাধারণ সভায় সাইদুর রহমানকে সভাপতি এবং আবদুল জলিল মিয়াকে সাধারণ সম্পাদক করে সমিতির প্রথম কার্যকরী সংসদ গঠিত হয়। সমিতির উদ্দেশ্য ও আদর্শ  বাস্তবায়নের জন্য দর্শন নামক একটি ত্রৈমাসিক পত্রিকা প্রকাশ, সেমিনার-সিম্পোজিয়ামের আয়োজন করা এবং প্রতি দুবছর অন্তর জাতীয় পর্যায়ে সম্মেলন করার পরিকল্পনা গৃহীত হয়। এ বছরেরই ফেব্রুয়ারি মাসে দর্শন  পত্রিকাটি প্রথম প্রকাশিত হয়।

সমিতির প্রথম জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় ১৯৭৪ সালের জানুয়ারিতে ঢাকায়; সম্মেলন উদ্বোধন করেন রাষ্ট্রপতি মুহম্মদ উল্লাহ। ১৯৭৪ থেকে ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত ঢাকা, রাজশাহী এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত সমিতির মোট ৯টি সাধারণ সম্মেলনে দেশ-বিদেশের পন্ডিতবর্গ যুক্তিবিদ্যা, অধিবিদ্যা, বাঙালির দর্শন, সমাজদর্শন, মনোদর্শন, রাষ্ট্রদর্শন, নীতিদর্শন, ধর্মদর্শন প্রভৃতি বিষয়ে প্রবন্ধপাঠ ও আলোচনা করেন; সম্মেলনের একটি কার্যবিবরণীও প্রকাশিত হয়। এছাড়াও সমিতি বিভিন্ন সময়ে জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক সমস্যা নিয়ে সেমিনার ও সিম্পোজিয়ামের আয়োজন করে।  [কালীপ্রসন্ন দাস]