বাংলাদেশ জাতীয় ভূগোল সমিতি

NasirkhanBot (আলোচনা | অবদান) কর্তৃক ০৪:২৩, ৫ মে ২০১৪ তারিখে সংশোধিত সংস্করণ (Added Ennglish article link)
(পরিবর্তন) ← পূর্বের সংস্করণ | সর্বশেষ সংস্করণ (পরিবর্তন) | পরবর্তী সংস্করণ → (পরিবর্তন)

বাংলাদেশ জাতীয় ভূগোল সমিতি (বিএনজিএ)  পেশাদার ভূগোলবিদদের এই জাতীয় সংস্থাটি ১৯৭৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। সমিতির প্রধান লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হলো ভূগোল এবং পরিবেশগত বিষয়াবলী সম্পর্কে স্কুল, কলেজ, উচ্চ শিক্ষাক্রমে এবং জনসাধারণের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি এবং সৃষ্ট সচেতনতাকে উৎসাহিত করা। বাংলাদেশ জাতীয় ভূগোল সমিতির কার্যাবলীর মধ্যে রয়েছে ‘জার্নাল অব বাংলাদেশ জিওগ্রাফিকাল এসোসিয়েশন’ নামক একটি ষাম্মাসিক গবেষণাপত্র প্রকাশ করা এবং প্রতি দুই বৎসর পরপর জাতীয় পর্যায়ে ভূগোল সম্মেলনের আয়োজন করা। এছাড়া সংস্থাটি অনিয়মিতভাবে বিভিন্ন গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করে। সংস্থাটি গবেষণা, শিক্ষা কার্যক্রম ও ভৌগোলিক জ্ঞানের বিস্তারমূলক কর্মকান্ডে সহায়তা দেয়; সক্রিয় সহযোগিতা প্রদান করে যাতে জাতীয় অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভৌগোলিক জ্ঞানকে কার্যকরভাবে কাজে লাগানো যায়। এ সম্পর্কে বাংলাদেশ জাতীয় ভূগোল সমিতি গবেষণা, আলোচনা, সম্মেলন, প্রদর্শনী, পর্যবেক্ষণ এবং প্রকাশনা ক্ষেত্রে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করে।

সমিতির নিজস্ব গ্রন্থাগার রয়েছে, যেখানে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক দেশীয় ও আন্তর্জাতিক গবেষণা পত্র, জার্নাল এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ ভূগোল গ্রন্থের সংগ্রহ রয়েছে। সদস্যদের চাঁদা এবং পত্রপত্রিকা বিক্রয়ই সমিতির আয়ের প্রধান উৎস। বর্তমানে সমিতির সদস্য সংখ্যা ৬০০-র উপরে।  [মেসবাহ-উস-সালেহীন]