বাংলাদেশ ইতিহাস পরিষদ

NasirkhanBot (আলোচনা | অবদান) কর্তৃক ০৪:২২, ৫ মে ২০১৪ তারিখে সংশোধিত সংস্করণ (Added Ennglish article link)
(পরিবর্তন) ← পূর্বের সংস্করণ | সর্বশেষ সংস্করণ (পরিবর্তন) | পরবর্তী সংস্করণ → (পরিবর্তন)

বাংলাদেশ ইতিহাস পরিষদ বাংলাদেশের ঐতিহাসিকদের একটি সংগঠন। ১৯৬৬ সালে (বাংলা ১৩৭৩) গঠিত সংগঠনটিই বাংলাদেশে প্রথম ইতিহাস সংস্থা হিসেবে অভিহিত। ইতিহাস পরিষদ মূলত প্রফেসর এ.বি.এম হাবিবুল্লাহর চিন্তার ফসল। তিনি তাঁর কয়েকজন সহকর্মী, ছাত্র এবং বিভিন্ন বিষয়ের পন্ডিতদের জোরালো সমর্থন নিয়ে এর একটি প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দেন।

বাংলাভাষায় ইতিহাস চর্চাকে জনপ্রিয় করার মহান উদ্দেশ্যেই ইতিহাস পরিষদ গঠন করা হয়। এর মূল উদ্দেশ্যকে বাস্তবায়িত করার জন্য পরিষদ ইতিহাস নামে একটি গবেষণা পত্রিকা নিয়মিতভাবে প্রকাশ, ঢাকার বাইরে দ্বিবার্ষিক সম্মেলনের আয়োজন, সেমিনার ও আলোচনা সভার ব্যবস্থা এবং প্রতিবছর প্রকাশিত শ্রেষ্ঠ ইতিহাস গ্রন্থের জন্য লেখককে স্বীকৃতি প্রদান ও সম্মানিত করাসহ প্রভৃতি কাজ করে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ভবনের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগ, বিশেষ করে এর ৩০১৪ নম্বর কক্ষে পরিষদ অফিসের কার্যক্রম চলে। প্রায় বারো শত সদস্যের মধ্য থেকে ২৭ জন কর্মকর্তা নিয়ে দু’বছরের জন্য নির্বাচিত একটি নির্বাহী কমিটি দ্বারা ইতিহাস পরিষদ পরিচালিত হয়। ইতিহাস বিষয়ে আগ্রহী যে-কোন স্নাতক ডিগ্রিধারী ব্যক্তিই এর সদস্যপদ লাভের যোগ্য বলে বিবেচিত।

আর্থিক সমর্থনের জন্য বাংলাদেশ ইতিহাস পরিষদ সদস্যদের চাঁদা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বার্ষিক অনুদান এবং সর্বোপরি জনহিতৈষী ব্যক্তিবর্গের দানের উপর নির্ভরশীল। [মোঃ আখতারুজ্জামান]