"খায়ের, মুহম্মদ আবুল" পাতাটির দুইটি সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

(Added Ennglish article link)
 
 
১ নং লাইন: ১ নং লাইন:
 
[[Category:বাংলাপিডিয়া]]
 
[[Category:বাংলাপিডিয়া]]
 +
[[Image:KhairMA.jpg|thumb|right|মুহম্মদ আবুল খায়ের]]
 
'''খায়ের, মুহম্মদ আবুল''' (১৯২৯-১৯৭১)  ১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বরের একজন শহীদ বুদ্ধিজীবী এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক। ১৯৭১ সালের আগস্ট মাসে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী জিজ্ঞাসাবাদের জন্য প্রথম তাঁকে আটক করেছিল। ১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বর সকালে নিজ বাসভবন থেকে স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি তাঁকে ধরে নিয়ে যায়। কিছুদিন পর মিরপুর বধ্যভূমিতে তাঁর মৃতদেহ পাওয়া যায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মসজিদ প্রাঙ্গণে তিনি সমাহিত আছেন।
 
'''খায়ের, মুহম্মদ আবুল''' (১৯২৯-১৯৭১)  ১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বরের একজন শহীদ বুদ্ধিজীবী এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক। ১৯৭১ সালের আগস্ট মাসে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী জিজ্ঞাসাবাদের জন্য প্রথম তাঁকে আটক করেছিল। ১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বর সকালে নিজ বাসভবন থেকে স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি তাঁকে ধরে নিয়ে যায়। কিছুদিন পর মিরপুর বধ্যভূমিতে তাঁর মৃতদেহ পাওয়া যায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মসজিদ প্রাঙ্গণে তিনি সমাহিত আছেন।
  
 
মুহম্মদ আবুল খায়ের ১৯২৯ সালের ১ এপ্রিল পিরোজপুর জেলার কাউখালী উপজেলাধীন গোসান্তারা ব্রাহ্মণডাঙ্গা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৫১ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগ থেকে তিনি এম.এ ডিগ্রি লাভ করেন। বরিশালের চাখারস্থ ফজলুল হক কলেজে তাঁর শিক্ষকতা জীবনের শুরু। পরে তিনি ঢাকাস্থ জগন্নাথ কলেজেও ইতিহাসের প্রভাষক হিসেবে কিছুদিন কর্মরত ছিলেন। ১৯৫৫ সালের নভেম্বর মাসে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগে জুনিয়র লেকচারার হিসেবে যোগ দেন। তিনি মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েই চাকরি করেন। ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আন্তর্জাতিক ইতিহাসে এম.এস. এবং পি-এইচ.ডি. ডিগ্রি অর্জন করেন। ১৯৬৮ সালে তাঁর পি-এইচ.ডি. অভিসন্দর্ভের কিছু অংশ United States Foreign Policy in the Indo-Pak Subcontinent, 1939-1947 শিরোনামে এশিয়াটিক সোসাইটি অব পাকিস্তান (বর্তমান বাংলাদেশ) থেকে প্রকাশিত হয়। স্বীকৃত গবেষণা পত্রিকায় তাঁর অনেকগুলি গবেষণাধর্মী প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়।
 
মুহম্মদ আবুল খায়ের ১৯২৯ সালের ১ এপ্রিল পিরোজপুর জেলার কাউখালী উপজেলাধীন গোসান্তারা ব্রাহ্মণডাঙ্গা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৫১ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগ থেকে তিনি এম.এ ডিগ্রি লাভ করেন। বরিশালের চাখারস্থ ফজলুল হক কলেজে তাঁর শিক্ষকতা জীবনের শুরু। পরে তিনি ঢাকাস্থ জগন্নাথ কলেজেও ইতিহাসের প্রভাষক হিসেবে কিছুদিন কর্মরত ছিলেন। ১৯৫৫ সালের নভেম্বর মাসে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগে জুনিয়র লেকচারার হিসেবে যোগ দেন। তিনি মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েই চাকরি করেন। ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আন্তর্জাতিক ইতিহাসে এম.এস. এবং পি-এইচ.ডি. ডিগ্রি অর্জন করেন। ১৯৬৮ সালে তাঁর পি-এইচ.ডি. অভিসন্দর্ভের কিছু অংশ United States Foreign Policy in the Indo-Pak Subcontinent, 1939-1947 শিরোনামে এশিয়াটিক সোসাইটি অব পাকিস্তান (বর্তমান বাংলাদেশ) থেকে প্রকাশিত হয়। স্বীকৃত গবেষণা পত্রিকায় তাঁর অনেকগুলি গবেষণাধর্মী প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়।
 
[[Image:KhairMA.jpg|thumb|right|মুহম্মদ আবুল খায়ের]]
 
 
  
 
আবুল খায়ের সব সময়ই সামাজিক ন্যায় বিচার এবং কল্যাণমূলক রাষ্ট্রের নীতিতে, এবং সবার উপরে তিনি মানুষের মর্যাদায় বিশ্বাসী ছিলেন। বাংলাদেশ আন্দোলনের তিনি ছিলেন একজন একনিষ্ঠ সমর্থক। জাতীয় বিভিন্ন ইস্যুতে তিনি সব সময়ই ছিলেন সরব।   [আকসাদুল আলম]
 
আবুল খায়ের সব সময়ই সামাজিক ন্যায় বিচার এবং কল্যাণমূলক রাষ্ট্রের নীতিতে, এবং সবার উপরে তিনি মানুষের মর্যাদায় বিশ্বাসী ছিলেন। বাংলাদেশ আন্দোলনের তিনি ছিলেন একজন একনিষ্ঠ সমর্থক। জাতীয় বিভিন্ন ইস্যুতে তিনি সব সময়ই ছিলেন সরব।   [আকসাদুল আলম]
  
 
[[en:Khair, M Abul]]
 
[[en:Khair, M Abul]]

১৬:৪৩, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৪ তারিখে সম্পাদিত সর্বশেষ সংস্করণ

মুহম্মদ আবুল খায়ের

খায়ের, মুহম্মদ আবুল (১৯২৯-১৯৭১)  ১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বরের একজন শহীদ বুদ্ধিজীবী এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক। ১৯৭১ সালের আগস্ট মাসে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী জিজ্ঞাসাবাদের জন্য প্রথম তাঁকে আটক করেছিল। ১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বর সকালে নিজ বাসভবন থেকে স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি তাঁকে ধরে নিয়ে যায়। কিছুদিন পর মিরপুর বধ্যভূমিতে তাঁর মৃতদেহ পাওয়া যায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মসজিদ প্রাঙ্গণে তিনি সমাহিত আছেন।

মুহম্মদ আবুল খায়ের ১৯২৯ সালের ১ এপ্রিল পিরোজপুর জেলার কাউখালী উপজেলাধীন গোসান্তারা ব্রাহ্মণডাঙ্গা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৫১ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগ থেকে তিনি এম.এ ডিগ্রি লাভ করেন। বরিশালের চাখারস্থ ফজলুল হক কলেজে তাঁর শিক্ষকতা জীবনের শুরু। পরে তিনি ঢাকাস্থ জগন্নাথ কলেজেও ইতিহাসের প্রভাষক হিসেবে কিছুদিন কর্মরত ছিলেন। ১৯৫৫ সালের নভেম্বর মাসে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগে জুনিয়র লেকচারার হিসেবে যোগ দেন। তিনি মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েই চাকরি করেন। ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আন্তর্জাতিক ইতিহাসে এম.এস. এবং পি-এইচ.ডি. ডিগ্রি অর্জন করেন। ১৯৬৮ সালে তাঁর পি-এইচ.ডি. অভিসন্দর্ভের কিছু অংশ United States Foreign Policy in the Indo-Pak Subcontinent, 1939-1947 শিরোনামে এশিয়াটিক সোসাইটি অব পাকিস্তান (বর্তমান বাংলাদেশ) থেকে প্রকাশিত হয়। স্বীকৃত গবেষণা পত্রিকায় তাঁর অনেকগুলি গবেষণাধর্মী প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়।

আবুল খায়ের সব সময়ই সামাজিক ন্যায় বিচার এবং কল্যাণমূলক রাষ্ট্রের নীতিতে, এবং সবার উপরে তিনি মানুষের মর্যাদায় বিশ্বাসী ছিলেন। বাংলাদেশ আন্দোলনের তিনি ছিলেন একজন একনিষ্ঠ সমর্থক। জাতীয় বিভিন্ন ইস্যুতে তিনি সব সময়ই ছিলেন সরব।   [আকসাদুল আলম]