মোহাম্মদপুর থানা (ঢাকা মেট্রোপলিটন)

মোহাম্মদপুর থানা (ঢাকা মেট্রোপলিটন) আয়তন: ৭.৪৪ বর্গ কিমি। অবস্থান: ২৩°৪৪´ থেকে ২৩°৪৬´ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৯০°১৯´ থেকে ৯০°২২´ পূর্ব দ্রাঘিমাংশ। সীমানা: উত্তরে আদাবর থানা, দক্ষিণে ধানমন্ডি ও হাজারীবাগ থানা, পূর্বে শেরেবাংলা নগর থানা, এবং সাভার উপজেলা, পশ্চিমে সাভার উপজেলা।

জনসংখ্যা ২৪১৩৪৩; পুরুষ ১৩৩৫৫৭, মহিলা ১০৭৭৮৬। মুসলিম ২৩৩৫৮০, হিন্দু ৬৩৬৬, বৌদ্ধ ১১৪৮, খ্রিস্টান ২১৩ এবং অন্যান্য ৩৬।

জলাশয় তুরাগ নদী।

প্রশাসন ১৯৭৬ সালের ২ ফেব্রুয়ারি মোহাম্মদপুর থানা গঠিত হয়।

থানা
ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন মহল্লা জনসংখ্যা ঘনত্ব (প্রতি বর্গ কিমি) শিক্ষার হার (%)
শহর গ্রাম শহর গ্রাম
৩+২ (আংশিক) ৩২ ২৪১৩৪৩ - ৩২৪৩৯ ৬৭.৬২ -
ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন
ওয়ার্ড নম্বর ও ইউনিয়ন আয়তন (বর্গ কিমি) লোকসংখ্যা শিক্ষার হার (%)
পুরুষ মহিলা
ওয়ার্ড  নং ৪২ ০.৭৬ ৩১৬৯৩ ২৬৩৭৫ ৬৮.৭৫
ওয়ার্ড  নং ৪৪ ০.৬০ ২৩০২৭ ১৮৮৯৫ ৮০.৪০
ওয়ার্ড  নং ৪৫ ১.৩৭ ২৬০৭৭ ২০৭৪০ ৬৫.৩৮
ওয়ার্ড  নং ৪৬ (আংশিক) ৩.৭৮ ২৮৭৮৫ ২১৪১৯ ৬২.৯০
ওয়ার্ড  নং ৪৭ (আংশিক) ০.৯৩ ২৩৯৭৫ ২০৩৫৭ ৬০.৬৮

সূত্র আদমশুমারি রিপোর্ট ২০০১, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো।

MohammadpurThanaDCC.jpg

মুক্তিযুদ্ধের ঘটনাবলি ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকবাহিনী ও তাদের সহযোগী রাজাকার, আলবদররা বুদ্ধিজীবীসহ বহু নিরীহ লোককে রায়ের বাজার এলাকায় ধরে এনে নির্মমভাবে হত্যা করত।

মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচিহ্ন বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধ (বেড়ি বাঁধের পাশে)।

ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান  মসজিদ ৫০, মন্দির ২। উল্লেখযোগ্য ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান: সাতগম্বুজ মসজিদ, বিবির মসজিদ, বায়তুল ফালহা মসজিদ, মসজিদ-ই-নূর।

শিক্ষার হার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড় হার ৭৪.৭০%; পুরুষ ৭২.৫৮%, মহিলা ৭৬.৮২%। বিশ্ববিদ্যালয় ২, মেডিকেল কলেজ ২, কলেজ ৭, মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৩০। উল্লেখযোগ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান: বাংলাদেশ ইউনির্ভাসিটি, লালমাটিয়া মহিলা কলেজ, ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল কলেজ, মোহাম্মাদপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, সেন্ট জোসেফ উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, গ্রীন হেরাল্ড স্কুল এন্ড কলেজ, মোহাম্মদপুর প্রিপারেটরি উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, কিং ফয়সাল হাইস্কুল, নূরজাহান মেমোরিয়াল গার্লস স্কুল।

সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান লাইব্রেরি ১, ক্লাব ১১, সিনেমা হল ২, জিমনেসিয়াম ২।

জনগোষ্ঠীর আয়ের প্রধান উৎস কৃষি ১.১৬%, অকৃষি শ্রমিক ৩.২৬%, শিল্প ২.৮৬%, ব্যবসা ২৪.৭০%, পরিবহণ ও যোগাযোগ ৯.২০%, নির্মাণ ৩.৭০%, ধর্মীয় সেবা ০.১৫%, চাকরি ৩৫.১৯%, রেন্ট অ্যান্ড রেমিটেন্স ৩.৮৭% এবং  অন্যান্য ১৫.৯১%।

কৃষিভূমির মালিকানা ভূমিমালিক ৫৫.৪৭%, ভূমিহীন ৪৪.৫৩%।

বিলুপ্ত বা বিলুপ্তপ্রায় ফসলাদি ধান, পাট, আখ, ডাল।

প্রধান ফল-ফলাদি আম, কাঁঠাল, পেয়ারা।

যোগাযোগ বিশেষত্ব মোট সড়ক ২৪৭.০৮ কিমি।

বিলুপ্ত বা বিলুপ্তপ্রায় সনাতন বাহন পাল্কি, গরু ও ঘোড়ার গাড়ি।

শিল্প ও কলকারখানা গার্মেন্টসশিল্প।

কুটিরশিল্প স্বর্ণশিল্প, হস্তশিল্প, সেলাই কাজ।

বাজার ও শপিং সেন্টার  টাউন হল মার্কেট, মোহাম্মদপুর কাঁচা বাজার, মীনা বাজার, আড়ং উল্লেখযোগ্য।

প্রধান রপ্তানিদ্রব্য   তৈরি পোশাক।

বিদ্যুৎ ব্যবহার এ থানার সবক’টি ওয়ার্ড বিদ্যুতায়ন কর্মসূচির আওতাধীন। তবে ৯৭.৩৫% পরিবারের বিদ্যুৎ ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে।

পানীয়জলের উৎস নলকূপ ১৩.৪২%, পুকুর ০.০৪%, ট্যাপ ৮৫.৫% এবং অন্যান্য ১.০৪%।

স্যানিটেশন ব্যবস্থা ৮৭.৪৮% পরিবার স্বাস্থ্যকর এবং ১২.০৪% পরিবার অস্বাস্থ্যকর ল্যাট্রিন ব্যবহার করে। ০.৪৮% পরিবারের  কোনো ল্যাট্রিন সুবিধা নাই।

স্বাস্থ্যকেন্দ্র হাসপাতাল ৪, ক্লিনিক ২০।

এনজিও ব্র্যাক, আশা, কেয়ার।  [সৈয়দ সাবিবর আহম্মদ]

তথ্যসূত্র আদমশুমারি রিপোর্ট ২০০১, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো।