হক, সিরাজুল


হক, সিরাজুল (১৯০৫-২০০৫)  শিক্ষাবিদ, গবেষক, শিক্ষক। জন্ম নোয়াখালী জেলার রামগঞ্জ থানার বেলাকোট গ্রামে, ১৯০৫ সালের ১ এপ্রিল। পিতা মৌলবি হামিদুল্লাহ। নিজ গ্রামের মক্তব ও মাদ্রাসায় প্রাথমিক শিক্ষা গ্রহণ। সিরাজুল হক ঢাকা মুহসিনিয়া মাদ্রাসা হতে ১৯২১ সালে ম্যাট্রিক, ১৯২৩ সালে ঢাকা ইসলামিক ইন্টার মিডিয়েট কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক, ১৯২৬ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিষয়ে বি এ অনার্স, ১৯২৭ সালে এম এ এবং ১৯৩০ সালে ফারসি বিষয়ে এম এ পাস করেন। তিনি ১৯৩৭ সালে লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন।

সিরাজুল হকের কর্মজীবন শুরু হয় ১৯২৮ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি ও ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগে সহকারি প্রভাষক হিসেবে। ১৯৩৭ সালে তিনি উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাষক, ১৯৪৩ সালে রিডার এবং ১৯৫১ সালে প্রফেসর পদে পদোন্নতি লাভ করে ১৯৭০ সাল পর্যন্ত কর্মরত ছিলেন। তিনি ১৯৫১ থেকে ১৯৭০ পর্যন্ত বিভাগীয় প্রধান, ১৯৬৪ থেকে ১৯৬৫ এবং ১৯৬৮-১৯৬৯ সাল পর্যন্ত দুবার কলা অনুষদের ডিন, ১৯৪০ থেকে ১৯৪৫ সাল পর্যন্ত সহকারি প্রক্টর এবং ১৯৪৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগারিক ছিলেন। ১৯৭০ সালে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অবৈতনিক কোষাধ্যক্ষ এবং ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তাছাড়া ১৯৭৫ সাল থেকে আমৃত্যু প্রফেসর ইমেরিটাস পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন।

আরবি, বাংলা, উর্দু ও ইংরেজি ভাষায় সমান দক্ষ এ শিক্ষাবিদ ১৯৭৯ সালে এশিয়াটিক সোসাইটি অব বাংলাদেশ এর সভাপতির পদ অলংকৃত করেন। এছাড়া আরও কয়েকটি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠানের সভাপতি ছিলেন।

সিরাজুল হক ১৯৬৯ সালে সিতারায়ে ইমতিয়ায পদক, ১৯৭৩ সালে এশিয়াটিক সোসাইটি অব বাংলাদেশ ফেলোশীপ, ১৯৮৩ সালে স্বাধীনতা পুরস্কার, ১৯৮৫ সালে ইসলামিক ফাউন্ডেশন পদক, ১৯৯৬ সালে কলকাতার এশিয়াটিক সোসাইটির প্রফেসর সুকুমার সেন স্বর্ণপদক এবং ১৯৯৭ সালে একুশে পদক লাভ করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় তাঁর স্মৃতি রক্ষার্থে ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগে ‘সিরাজুল হক ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার’ প্রতিষ্ঠা করেছে। ২০০৫ সালের ৪ মার্চ সিরাজুল হকের মৃত্যু হয়। [আ.ব.ম. সাইফুল ইসলাম সিদ্দীকী]