সাঁওতাল পট


সাঁওতাল পট  সাঁওতাল উপজাতির জন্মকথা এবং তাদের কল্পনায় মৃত্যুপরবর্তী জগৎ নিয়ে অঙ্কিত পটচিত্র। পশ্চিমবঙ্গের পুরুলিয়া ও বাঁকুড়ার উত্তর-পশ্চিম অঞ্চলে এর প্রচলন আছে। এ অঞ্চলের উপজাতিগুলির মধ্যে সাঁওতালরা সংখ্যাগরিষ্ঠ। তাই শিল্পীরা প্রধানত তাদের উপকথাভিত্তিক জন্মকথাই চিত্রিত করেন। সাঁওতালদের ‘কোরিযাক কথা’ এরূপ একটি উপকথা।

চিত্রে সাঁওতালদের উৎপত্তির কাহিনী ওপর থেকে নিচের দিকে পাঁচটি অংশে অাঁকা হয়: ১. সম্পূর্ণ জগৎ জলমগ্ন; দুটি রাজহাঁস (একটি পুরুষ, অপরটি নারী) জলের ওপর আকাশে উড়ছে; কোথাও বসার মতো এতটুকু ডাঙ্গা নেই; ২. সেই বিশাল জলরাশির মধ্যে একটি কেঁচো এক খন্ড জমি তৈরি করে; ৩. হংসযুগল সেই জমিতে বসবাস করে এবং রাজহংসী এক সময় দুটি ডিম পাড়ে; ৪. ডিম দুটি থেকে দুটি বাচ্চা জন্ম নেয় একটি পুরুষ, অপরটি নারী; ৫. এই আদি পুরুষ ও আদি নারীর (আদম ও ইভের মতো) মিলনে জন্ম হয় সাঁওতালদের।

সাঁওতালদের মধ্যে প্রচলিত উপকথা ও পটুয়াদের পটে অঙ্কিত কাহিনীর গঠনতান্ত্রিক উপাদানগুলি প্রায় অভিন্ন; পটের ক্ষেত্রে কেবল বিস্তারিত বিবরণ সংক্ষিপ্ত করা হয়।  [ইয়াস ভানু বেগম]