সবুজ ছাতা


সবুজ ছাতা  স্বাস্থ্য পরিচর্যা কেন্দ্রের একটি প্রতীক, যেখানে বিশেষ করে পরিবার পরিকল্পনা সেবা প্রদান করা হয়। যৌন সম্পর্কবাহিত রোগসহ অন্যান্য সাধারণ স্বাস্থ্য সেবারও ব্যবস্থা এখানে আছে। জনগণের স্বার্থসংশি­ষ্ট বার্তা বহনের জন্য প্রতীকসমূহ কখনও কখনও খুবই প্রয়োজনীয় মাধ্যম হিসেবে কাজ করে। শিক্ষার নিম্নহারসম্পন্ন একটি দেশে জনগণের মাঝে স্বাস্থ্যবার্তা আগাম পৌঁছে দেওয়ার জন্য এর ব্যবহার খুবই ফলপ্রসূ।

বাংলাদেশ সরকার ১৯৯৮ সালে সবুজ ছাতা প্রতীকের প্রচলন করে। স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের অধীনে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর থেকে এটি শুরু হয়। সাধারণত বেসরকারি সংস্থার মাধ্যমে এ ধরনের প্রচেষ্টা নেওয়া হয় এবং এক্ষেত্রেও এনজিও-র অংশগ্রহণের ফলে এই প্রতীকটির জনপ্রিয়করণ সহজ হয়েছে। সবুজ ছাতা প্রতীকটি সবটাই সবুজ নয়, সাদা ও সবুজের পর্যায়ক্রমিক বিন্যাসে এটি তৈরি হয়। কিন্তু এর প্রচারের সুবিধার্থে একে সবুজ ছাতা বলা হয়। রাস্তার ধারে এবং এর সেবা কেন্দ্রে বড় বড় সাইনবোর্ড দিয়ে এটি প্রদর্শিত হয়। বেতার এবং টেলিভিশন প্রচার মাধ্যমে জনগণের কাছে এর পরিচিতি তুলে ধরা হয় এবং সেবা গ্রহণের জন্য আহবান জানানো হয়। যেহেতু তুলনামূলকভাবে এটি একটি নতুন প্রচেষ্টা তাই যে উদ্দেশ্য নিয়ে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে তার কার্যকারিতার মূল্যায়ন এখনও হয় নি।  [জিয়া উদ্দিন আহমেদ]

আরও দেখুন পরিবার পরিকল্পনা