শীলাদেবীর ঘাট


শীলাদেবীর ঘাট  জনশ্রুতিতে বর্ণিত শীলাদেবীর ঘাট বগুড়া জেলার মহাস্থানগড় থেকে ২০০ মিটার পূর্ব দিকে করতোয়া নদীতে অবস্থিত। স্থানটির অবস্থান মহাস্থানগড়স্থ বৈরাগীর ভিটার বিপরীত দিকে। স্থানীয় কাহিনী-কিংবদন্তী অনুযায়ী শীলাদেবী ছিলেন মহাস্থানগড়ের শেষ হিন্দু রাজা পরশুরামের কন্যা বা ভগ্নি। মুসলিম সাধক শাহ সুলতান বলখী (রঃ) মাহীসওয়ার কর্তৃক রাজা পরশুরাম পরাজিত হলে শীলাদেবী করতোয়ার এই স্থানে জলে ডুবে আত্মাহুতি দেন। এই স্থানটি তাই শীলাদেবীর ঘাট নামে পরিচিত। স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায় এখানে তাদের বার্ষিক পৌষ-নারায়ণী স্নান করে থাকে। অন্য এক জনশ্রুতি মতে, স্থানটি এক সময় নৌপথে আমদানি করা পাথর খালাস ও স্তূপীকৃত করে রাখার জন্য ব্যবহূত হতো বলে কালক্রমে এর নাম হয় শিলা দ্বীপ, যার বিকৃত রূপই সম্ভবত শীলাদেবী এবং শীলাদেবীর ঘাট।  [মোঃ আইয়ুব খান]