শীলভদ্র


শীলভদ্র (৭ম শতক)  বৌদ্ধ পন্ডিত। সমতটের এক  ব্রাহ্মণ রাজবংশে তাঁর জন্ম। নবদ্বীপ বা বিক্রমপুরস্থ রামপাল তাঁর জন্মস্থান বলে অনুমান করা হয়। ভারতবর্ষের নানা স্থান পরিভ্রমণশেষে বৌদ্ধধর্মে দীক্ষা নিয়ে তিনি ‘দন্ডদেব’ নামে আখ্যাত হন। বসুবন্ধুর অনুগামী শীলভদ্র নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ ধর্মপালের শিষ্যত্ব গ্রহণ করেন। মাত্র ত্রিশ বছর বয়সে তিনি দাক্ষিণাত্যের জনৈক ব্রাহ্মণ পন্ডিতকে তর্কযুদ্ধে পরাজিত করেন। তাঁর পান্ডিত্যে মুগ্ধ হয়ে মগধরাজ শীলভদ্রকে যে পারিতোষিক দান করেন, তা দিয়ে তিনি একটি বৌদ্ধবিহার প্রতিষ্ঠা করেন।

শীলভদ্র বৌদ্ধ ধর্মশাস্ত্র ব্যতীত  বেদ, দর্শন, চিকিৎসাশাস্ত্র প্রভৃতি বিদ্যায় পারদর্শী ছিলেন। ৬৩৫ খিস্টাব্দে তিনি নালন্দা মহাবিহারের প্রধান আচার্য ও সর্বাধ্যক্ষের পদ লাভ করেন। সংঘবাসিগণ তাঁকে ‘সদ্ধর্মনিধি’ উপাধিতে ভূষিত করেন। ৬৩৭ খ্রিস্টাব্দে নালন্দায় চৈনিক পরিব্রাজক হিউয়েন সাঙ্ তাঁর নিকট যোগশাস্ত্র অধ্যয়ন করেন। অপর এক চৈনিক পরিব্রাজক হুই লি বলেন, শীলভদ্র সব বৌদ্ধশাস্ত্রে পারঙ্গম ছিলেন। তিববতের তেঙ্গুরে তাঁর আর্যবুদ্ধভূমিব্যাখ্যান গ্রন্থের অনুবাদ সংরক্ষিত আছে।  [কানাইলাল রায়]