লক্ষ্মীধর


লক্ষ্মীধর (১১শ শতক)  সংস্কৃত কবি। চক্রপাণিবিজয় নামক ২২ পর্বে রচিত মহাকাব্যে প্রদত্ত কবির আত্মপরিচয় থেকে জানা যায় যে, তিনি ছিলেন শ্রীস্তম্ভের পুত্র এবং গৌড়ের ‘ভট্টাঙ্কিত কোশল’ বা ‘ভট্টকোশল’ গ্রামের বাসিন্দা। বিশেষজ্ঞদের মতে উক্ত স্থানটি বর্তমান  বগুড়া জেলার কুশৈল গ্রাম। তিনি মালবে গিয়ে পরমাররাজ বা ধারারাজ ভোজের (১০০০-৪৫) সভাসদ হন। কারো কারো মতে তিনি বঙ্গাধীশ ভোজবর্মদেবের (১২শ শতকের শেষার্ধ) সভাসদ ছিলেন।

চক্রপাণিবিজয় মহাকাব্যের বিষয়বস্ত্ত বাণাসুরের কন্যা ঊষার বিবাহের কাহিনী। সুভাষিতরত্নকোশ,  সদুক্তিকর্ণামৃত প্রভৃতি কোষকাব্যে লক্ষ্মীধরের নামাঙ্কিত বেশ কিছু শ্লোক আছে। তবে ওইসব শে­াকের রচয়িতা এবং উক্ত লক্ষ্মীধর অভিন্ন কিনা তা নিশ্চিত নয়।  [সুরেশচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়]