রাজস্ব জরিপ


রাজস্ব জরিপ  ব্রিটিশ সরকার বাংলার মৌজা ও পরগনাসমূহের সামাজিক, অর্থনৈতিক ও প্রাকৃতিক বিবরণ এবং কৃষির পরিস্থিতি নিয়ে নিবিড় অনুসন্ধান কাজ চালায়। রাজস্ব জরিপ শুরুর পূর্বে পরিচালিত থাকবস্ত জরিপ গ্রামাঞ্চলে বৈজ্ঞানিক জরিপের ভিত্তি প্রস্ত্তত করেছিল। ১৮৪৫ সাল থেকে থাকবস্ত উপাত্তের ভিত্তিতে রাজস্ব জরিপ কাজ আরম্ভ হয়। নিয়মানুযায়ী একটি মৌজায় থাকবস্ত জরিপ শেষ হওয়ার পরপরই রাজস্ব জরিপ কাজ শুরু হওয়ার কথা। রাজস্ব জরিপের প্রধান লক্ষ্যগুলি ছিল: ক. গ্রাম ও ভূসম্পত্তির সীমানা নির্ধারণ নিশ্চিত করা এবং এসব সীমানা নির্দেশ করে সঠিকভাবে পরগনা-মানচিত্র প্রস্ত্তত করা; খ. প্রাকৃতিক বিবরণের অনুপুঙ্খ তালিকা করা; গ. প্রশাসনিক প্রয়োজনে লাভজনকভাবে ব্যবহূত হতে পারে এমন পরিসংখ্যানগত উপাত্ত সংগ্রহ করা; এবং ঘ. কোনো কোনো ক্ষেত্রে মৌজার মাঠ (খসড়া) জরিপ করা।

পরগনা ছিল রাজস্ব জরিপ মানচিত্র ও অন্যান্য তথ্যের একক। পরগনা মানচিত্রে সত্তরটি জরিপ বিষয়ে তথ্য পরিবেশিত হয় যাতে নগর, শহর, গ্রাম, পরিত্যক্ত গ্রাম, হাটবাজার, পাকা ও কাঁচা রাস্তা, খাল ও নদী, জলাভূমি, সেতু ও কালভার্ট, চাষযোগ্য ও অকর্ষিত জমি, বনভূমি, হিন্দু ও মুসলিম জনসংখ্যা এবং গাছপালা সম্পর্কে পরিসংখ্যান দেওয়া হয়। রাজস্ব জরিপ মানচিত্রগুলির সবক’টি এখন ব্রিটিশ লাইব্রেরিতে (প্রাচ্য রেকর্ড) সংরক্ষিত। মানচিত্রগুলির অনুলিপি পুরানো সকল জেলায় বিভিন্ন কালেক্টরেট রেকর্ড রুমেও অনিয়মিতভাবে সংরক্ষিত আছে।  [সিরাজুল ইসলাম]