মৎস্যেন্দ্রনাথ


মৎস্যেন্দ্রনাথ (আনু. ১০ম-১২শ শতকের মধ্যে)  বাংলা ভাষার আদি কবিদের অন্যতম, তান্ত্রিক এবং নাথধর্মের প্রবর্তক। তাঁর অপর নাম মীননাথ। তিনি চন্দ্রদ্বীপ (বরিশাল), মতান্তরে সন্দ্বীপের অধিবাসী ছিলেন। অনেকের মতে, সিদ্ধাচার্য লুইপা এবং মৎস্যেন্দ্রনাথ অভিন্ন ব্যক্তি। আশ্চর্যচর্যাশ্চর্যের টীকায় উদ্ধৃত মৎস্যেন্দ্রনাথের ‘কহন্তি গুরু পরমার্থের বাট’ পদটি প্রাচীনতম বাংলা কবিতার নিদর্শন হিসেবে স্বীকৃত। সিদ্ধাচার্য গোরক্ষনাথ মৎস্যেন্দ্রনাথের শিষ্য। বাংলাদেশের যোগী সম্প্রদায় মৎস্যেন্দ্রনাথের বংশ বা শিষ্য-পরম্পরার ধারক। গুরু-উপদিষ্ট পদ্ধতিতে সাধনার দ্বারা দেহস্থিত সুপ্ত শক্তির জাগরণ ঘটিয়ে আত্মজ্ঞান তথা পরম মুক্তি লাভই নাথধর্মের মূল কথা।

মৎস্যেন্দ্রনাথ  সংস্কৃত ভাষায় বেশ কয়েকটি তন্ত্রগ্রন্থ রচনা করেছেন। সেসবের মধ্যে কৌলজ্ঞাননির্ণয়, অকুলবীরতন্ত্র, কুলানন্দতন্ত্র এবং জ্ঞানকারিকা এই চারখানি গ্রন্থে তাঁর প্রবর্তিত যোগাশ্রিত নাথধর্মের কথা বিবৃত হয়েছে।  [রবীন্দ্রনাথ সরকার]