বক্ষব্যাধি ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল


বক্ষব্যাধি ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল  (Institute of Diseases of the Chest and Hospital/IDCH)  ১৯৫৫ সালে ঢাকার মহাখালীতে ২০০ শয্যাবিশিষ্ট যক্ষ্মা হাসপাতাল হিসেবে প্রথম প্রতিষ্ঠিত। ১৯৬২ সালে বক্ষব্যাধি ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল (IDCH) হিসেবে উন্নীত হলে এখানে যক্ষ্মা ও বক্ষব্যাধি বিষয়ে ডিপ্লোমা কোর্স (DTCD) চালু হয়। শিক্ষা, গবেষণা ও প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট হিসেবে এটি ১৯৯৩ সাল থেকে এম.ডি (বক্ষব্যাধি) এবং ১৯৯৯ সাল থেকে এম.এস (বক্ষ সার্জারি) ডিগ্রি প্রদান চালু করে। এছাড়াও দেশের বিভিন্ন চিকিৎসা মহাবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য স্বল্পমেয়াদি প্রশিক্ষণ কোর্স চালু করেছে। ইনস্টিটিউটসহ হাসপাতালটি দুটি শাখার মাধ্যমে কার্যক্রম পরিচালনা করে। একাডেমিক শাখা মেডিসিন বিভাগ ৬টি ইউনিট নিয়ে গঠিত– Anesthesia, Radiology, Pathology, Microbiology, Physical Medicine এবং Transfusion Medicine। অন্য শাখায় রয়েছে শল্যচিকিৎসা বিভাগ। হাসপাতাল শাখাটিতে আছে ১০টি পৃথক ব্লকে শল্যচিকিৎসার জন্য ১৭০টি এবং মেডিসিন চিকিৎসার জন্য ৪৩০টি শয্যা। জাতীয় হাঁপানি কেন্দ্র (National Asthma Centre) নামে একটি প্রকল্প ও এখানে রয়েছে।

শল্যচিকিৎসা কার্যক্রমের আওতায় প্রধান অস্ত্রোপচারের মধ্যে রয়েছে ফুসফুসীয়, ফুসফুসবহিস্থ, খাদ্যনালীগত ও প্লুরার পূর্ণাঙ্গ অস্ত্রোপচার এবং ক্লোমনালীবীক্ষণ (bronchoscopy), অন্ননালীবীক্ষণ (oesophagoscopy) ইত্যাদি। তন্তুময় ক্লোমনালীবীক্ষণ (fibreoptic bronchoscopy) এবং শ্বাসমিতি (spirometry) চিকিৎসা বহির্বিভাগে করা হয়। হাসপাতালটিতে বছরে প্রায় ৩০০ বড় ধরনের এবং ৬০০ ছোট ধরনের অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়। এখানকার রোগতত্ত্ব বিভাগ নিয়মিত পরীক্ষাদি ছাড়াও ফুসফুসের বিভিন্ন রোগনির্ণয়ে কফ ও থুথু কালচার করে থাকে। বহির্বিভাগে পরীক্ষিত দৈনিক রোগীসংখ্যা প্রায় ৩০০, যারা IDCH-এর অভিজ্ঞ চিকিৎসকদের কাছ থেকে চিকিৎসার ব্যাপারে বিশেষজ্ঞ পরামর্শ পেয়ে থাকে। ইনস্টিটিউটের ১৯ হেক্টর জমিতে একাডেমিক ভবন ও হাসপাতালের ইমারত এবং চিকিৎসক, শিক্ষার্থী, সেবিকা ও অন্যান্য কর্মচারীর আবাসন ব্যবস্থা রয়েছে। ইনস্টিটিউটের আছে একটি সুসজ্জিত শ্বসনবিষয়ক নিবিড় পরিচর্যা ইউনিট (intensive care unit/ICU), ৩টি অস্ত্রোপচারকক্ষ এবং একটি অস্ত্রোপচার পরবর্তী বিশেষ কক্ষ। রোগতত্ত্ব বিভাগে রয়েছে তড়িৎ-বিশ্লেষক ও ধমনীরক্ত গ্যাস-বিশ্লেষক (arterial blood gas analyzer)। ফিজিক্যাল মেডিসিন বিভাগে রয়েছে শ্বসনসংক্রান্ত ভৌতচিকিৎসার (respiratory physiotherapy) যাবতীয় প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি। Radiology বিভাগে আছে ৫০০ মিমি ক্ষমতাসম্পন্ন এক্সরে যন্ত্র, একটি আলট্রাসনোগ্রাম যন্ত্র ও ইকোকার্ডিওগ্রাফিক সুবিধাদি। গ্রন্থাগারে রয়েছে পর্যাপ্ত সংখ্যক মৌলিক ও সহায়ক বই-পুস্তক ও চিকিৎসা সাময়িকী। [মোঃ সফিউল্লাহ]