ফরাশগঞ্জ


ফরাশগঞ্জ  ঢাকার অদূরে নায়েব নাজিম নওয়াব নওয়াজিশ মোহাম্মদ খান-এর অনুমতি নিয়ে ১৭৮০ সালে একটি ফরাসি বাজার প্রতিষ্ঠিত হয়। এ এলাকার আদি নাম ছিল ফ্রেন্সগঞ্জ। এখানে ফরাসি লোকজন বসবাস করত এবং সে সময়ে এর একদিকে আহ্সান মঞ্জিল এবং অপরদিকে তেজগাঁও-এর গার্ডেন হাউজ ছিল। ১৭৫০ সালে ইংরেজদের মালিকানাধীন একটি কারখানা দখলের মাধ্যমে এ জায়গায় ফরাসি বসতির সূত্রপাত ঘটে। এতে একটি সঙ্কট দেখা দিলে পরবর্তীকালে নায়েব নাজেম জাসারাত খানের হস্তক্ষেপে তা নিরসিত হয়। ১৭৫৭ সালে বাংলার মুসলিম যুগের অবসানের বহু পূর্বে উক্ত কারখানার নাম ঢাকা কারখানা করা হয়। কিন্তু ফরাশগঞ্জের সমৃদ্ধি অব্যাহত থাকে। এলাকাটিতে ফরাসি ব্যবসায়ীরা কাঁচা হলুদ, আদা, রসুন ও মরিচের পাইকারি আড়ত গড়ে তোলে। ঢাকা শহরে এটি একটি ফরাসি অধ্যুষিত এলাকা। এছাড়া ফরাশগঞ্জ বহুসংখ্যক পুরানো ও ঐতিহাসিক ভবনের জন্যও বিখ্যাত। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য নদীর তীর ঘেঁষে নির্মিত রূপলাল হাউজ এবং ফরাশগঞ্জ মহল্লার দীর্ঘ প্রবেশদ্বার যেখানে বিবির রাওজা অবস্থিত। আরও আছে ঢাকার সবচেয়ে প্রাচীন ভবন হুসেনী দালান এবং ফরাশগঞ্জ নীলকুঠি যা বর্তমানে বিবাহ অনুষ্ঠানের স্থান হিসেবে ব্যবহূত হয়। [এস.এম মাহফুজুর রহমান]