"পূর্ব পাকিস্তান ফটোগ্রাফিক সোসাইটি"-এর বিভিন্ন সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য


(Added Ennglish article link)
 
 
৪ নং লাইন: ৪ নং লাইন:
 
প্রতিষ্ঠার অব্যবহিত পরপরই সংগঠনটি করাচিতে একটি আন্তর্জাতিক আলোকচিত্র প্রদর্শনী এবং রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথের অভিষেক উপলক্ষে ব্রিটেনের উৎসব নামে যে অনুষ্ঠানমালা আয়োজিত হয়, তার অংশ হিসেবে অনুষ্ঠিত পাকিস্তান-ব্রিটেন যৌথ আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করে। সাংগঠনিক দুর্বলতার কারণে পূর্ব পাকিস্তান ফটোগ্রাফিক সোসাইটি খুব বেশি দিন টিকতে পারে নি। উনিশ শতকের ষাট-এর দশকে পাকিস্তানের উভয় প্রদেশে রাজনৈতিক অস্থিরতাও এটি বিলুপ্ত হয়ে যাওয়ার একটি কারণ। বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর ১৯৭৫ সালে এম.এ বেগের উদ্যোগে সংগঠনটির উত্তরসূরী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয় বাংলাদেশ ফটোগ্রাফিক সোসাইটি।  [আমানুল হক]
 
প্রতিষ্ঠার অব্যবহিত পরপরই সংগঠনটি করাচিতে একটি আন্তর্জাতিক আলোকচিত্র প্রদর্শনী এবং রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথের অভিষেক উপলক্ষে ব্রিটেনের উৎসব নামে যে অনুষ্ঠানমালা আয়োজিত হয়, তার অংশ হিসেবে অনুষ্ঠিত পাকিস্তান-ব্রিটেন যৌথ আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করে। সাংগঠনিক দুর্বলতার কারণে পূর্ব পাকিস্তান ফটোগ্রাফিক সোসাইটি খুব বেশি দিন টিকতে পারে নি। উনিশ শতকের ষাট-এর দশকে পাকিস্তানের উভয় প্রদেশে রাজনৈতিক অস্থিরতাও এটি বিলুপ্ত হয়ে যাওয়ার একটি কারণ। বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর ১৯৭৫ সালে এম.এ বেগের উদ্যোগে সংগঠনটির উত্তরসূরী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয় বাংলাদেশ ফটোগ্রাফিক সোসাইটি।  [আমানুল হক]
  
''আরও দেখুন'' ফটোগ্রাফিক সোসাইটি অব বেঙ্গল।
+
''আরও দেখুন'' [[ফটোগ্রাফিক সোসাইটি অব বেঙ্গল|ফটোগ্রাফিক সোসাইটি অব বেঙ্গল]]।
  
 
[[en:East Pakistan Photographic Society]]
 
[[en:East Pakistan Photographic Society]]

১৪:২৩, ৮ এপ্রিল ২০১৫ তারিখে সম্পাদিত বর্তমান সংস্করণ

পূর্ব পাকিস্তান ফটোগ্রাফিক সোসাইটি  পাকিস্তান ফটোগ্রাফিক সোসাইটির শাখা হিসেবে ১৯৫০ সালে ঢাকায় প্রতিষ্ঠিত হয়। এর উদ্যোক্তাদের মধ্যে ছিলেন প্রাদেশিক সরকারের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হবীবুল্লাহ বাহার চৌধুরী, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের সচিব জি.এ ফারুকী, বার্মা শেল-এর নির্বাহী কর্মকর্তা ই.এম প্যাটেল, মাই স্টুডিও-র স্বত্বাধিকারী হিমাংশু দত্ত, ইংল্যান্ডের রয়াল ফটোগ্রাফিক সোসাইটির সদস্য আজমল হক প্রমুখ এবং কয়েকজন প্রখ্যাত ফটোগ্রাফার, এম.এ জায়দী, ফজলে হোসেন ও আমানুল হক।

প্রতিষ্ঠার অব্যবহিত পরপরই সংগঠনটি করাচিতে একটি আন্তর্জাতিক আলোকচিত্র প্রদর্শনী এবং রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথের অভিষেক উপলক্ষে ব্রিটেনের উৎসব নামে যে অনুষ্ঠানমালা আয়োজিত হয়, তার অংশ হিসেবে অনুষ্ঠিত পাকিস্তান-ব্রিটেন যৌথ আলোকচিত্র প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করে। সাংগঠনিক দুর্বলতার কারণে পূর্ব পাকিস্তান ফটোগ্রাফিক সোসাইটি খুব বেশি দিন টিকতে পারে নি। উনিশ শতকের ষাট-এর দশকে পাকিস্তানের উভয় প্রদেশে রাজনৈতিক অস্থিরতাও এটি বিলুপ্ত হয়ে যাওয়ার একটি কারণ। বাংলাদেশের স্বাধীনতার পর ১৯৭৫ সালে এম.এ বেগের উদ্যোগে সংগঠনটির উত্তরসূরী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয় বাংলাদেশ ফটোগ্রাফিক সোসাইটি।  [আমানুল হক]

আরও দেখুন ফটোগ্রাফিক সোসাইটি অব বেঙ্গল