"পানাম সেতু"-এর বিভিন্ন সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য


(Text replacement - "\[মুয়ায্যম হুসায়ন খান\]" to "[মুয়ায্‌যম হুসায়ন খান]")
 
৩ নং লাইন: ৩ নং লাইন:
 
'''পানাম সেতু'''  সোনারগাঁয়ের অন্তর্গত হাবিবপুরের কিছুটা পূর্বদিকে কোম্পানিগঞ্জ ও বারি-মজলিশের মধ্যবর্তী পাকা রাস্তা সংযোগকারী একটি সুদৃশ্য পুরাতন সেতু। সেতুটি হাজীগঞ্জের সঙ্গে বৈদ্যের বাজারের সংযোগকারী কাঁচা সড়কে পঙ্খীরাজ খালের উপর সপ্তদশ শতকে নির্মিত হয়। প্রথম অবস্থায় সেতুটি ‘কোম্পানি কে গঞ্জ কা পুল’ (কোম্পানিগঞ্জের সেতু) নামে পরিচিত ছিল। ১৭৩ ফুট দীর্ঘ এবং ১৪ ফুট প্রশস্ত তিন খিলান বিশিষ্ট এই সেতুর মধ্যবর্তী খিলানটি অপেক্ষাকৃত প্রশস্ত ও উঁচু। ফলে এর তলা দিয়ে সহজে নৌকা চলাচল করতে পারে।
 
'''পানাম সেতু'''  সোনারগাঁয়ের অন্তর্গত হাবিবপুরের কিছুটা পূর্বদিকে কোম্পানিগঞ্জ ও বারি-মজলিশের মধ্যবর্তী পাকা রাস্তা সংযোগকারী একটি সুদৃশ্য পুরাতন সেতু। সেতুটি হাজীগঞ্জের সঙ্গে বৈদ্যের বাজারের সংযোগকারী কাঁচা সড়কে পঙ্খীরাজ খালের উপর সপ্তদশ শতকে নির্মিত হয়। প্রথম অবস্থায় সেতুটি ‘কোম্পানি কে গঞ্জ কা পুল’ (কোম্পানিগঞ্জের সেতু) নামে পরিচিত ছিল। ১৭৩ ফুট দীর্ঘ এবং ১৪ ফুট প্রশস্ত তিন খিলান বিশিষ্ট এই সেতুর মধ্যবর্তী খিলানটি অপেক্ষাকৃত প্রশস্ত ও উঁচু। ফলে এর তলা দিয়ে সহজে নৌকা চলাচল করতে পারে।
  
সেতুপথটি বৃত্তাকারে সন্নিবেশিত ইটের গাঁথুনিতে খাঁড়াভাবে তৈরি। স্থাপত্যরীতি বিবেচনায় সেতুটি মুগল আমলে (সপ্তদশ শতক) নির্মিত বলে অনুমিত হয়।  [মুয়ায্যম হুসায়ন খান]
+
সেতুপথটি বৃত্তাকারে সন্নিবেশিত ইটের গাঁথুনিতে খাঁড়াভাবে তৈরি। স্থাপত্যরীতি বিবেচনায় সেতুটি মুগল আমলে (সপ্তদশ শতক) নির্মিত বলে অনুমিত হয়।  [মুয়ায্‌যম হুসায়ন খান]
  
  
 
[[en:Panam Bridge]]
 
[[en:Panam Bridge]]

২২:১৭, ১৭ এপ্রিল ২০১৫ তারিখে সম্পাদিত বর্তমান সংস্করণ

পানাম সেতু

পানাম সেতু  সোনারগাঁয়ের অন্তর্গত হাবিবপুরের কিছুটা পূর্বদিকে কোম্পানিগঞ্জ ও বারি-মজলিশের মধ্যবর্তী পাকা রাস্তা সংযোগকারী একটি সুদৃশ্য পুরাতন সেতু। সেতুটি হাজীগঞ্জের সঙ্গে বৈদ্যের বাজারের সংযোগকারী কাঁচা সড়কে পঙ্খীরাজ খালের উপর সপ্তদশ শতকে নির্মিত হয়। প্রথম অবস্থায় সেতুটি ‘কোম্পানি কে গঞ্জ কা পুল’ (কোম্পানিগঞ্জের সেতু) নামে পরিচিত ছিল। ১৭৩ ফুট দীর্ঘ এবং ১৪ ফুট প্রশস্ত তিন খিলান বিশিষ্ট এই সেতুর মধ্যবর্তী খিলানটি অপেক্ষাকৃত প্রশস্ত ও উঁচু। ফলে এর তলা দিয়ে সহজে নৌকা চলাচল করতে পারে।

সেতুপথটি বৃত্তাকারে সন্নিবেশিত ইটের গাঁথুনিতে খাঁড়াভাবে তৈরি। স্থাপত্যরীতি বিবেচনায় সেতুটি মুগল আমলে (সপ্তদশ শতক) নির্মিত বলে অনুমিত হয়।  [মুয়ায্‌যম হুসায়ন খান]