পলিকণা


পলিকণা (Silt)  একটি মৃত্তিকা গ্রথন যাতে ৮০ শতাংশেরও অধিক পরিমাণে পলিকণা থাকে। অন্যভাবে বলা যায় যে, এক প্রকার কণা অর্থাৎ কর্করীয় কণা যা সূক্ষ্ম বালিকণা থেকে মিহি এবং এঁটেলকণা থেকে স্থূলাকার। পলিকণার ব্যাসের পরিসর আমেরিকা ব্যতীত আন্তর্জাতিক সিস্টেমে ০.০২ থেকে ০.০০২ মিলিমিটার এবং আমেরিকার সিস্টেমে ০.০৫ থেকে ০.০০২ মিলিমিটার। প্রকৃতপক্ষে, এটি পলিকণা আকারের শিলা ও মণিক কণাসমূহের একটি গুচ্ছ। মৃত্তিকাতে বিদ্যমান কঠিন দশার মণিক উপাদানের একটি গুরুত্বপূর্ণ অজৈব উপাদান হলো পলিকণা। বালিকণার মতো পলিকণাও মৃত্তিকাতে প্রাথমিক শিলা বা শিলার খন্ডিতাংশের অবক্ষয় প্রক্রিয়ায় উৎপন্ন হয়। পলিকণা মৃত্তিকা গ্রথনের অবিচ্ছেদ্য অংশ এবং প্রত্যক্ষভাবে মৃত্তিকার ধর্মাবলি, যেমন-রন্ধ্রতা, ঘনত্ব, সংবদ্ধতা ইত্যাদির সঙ্গে সম্পর্কিত। পলি অংশের ধর্মাবলি কিছুটা বালিকণা ও এঁটেলকণার মাঝামাঝি। মিহি প্রকৃতির হওয়ার কারণে পলিকণার কার্যকর পৃষ্ঠতল বেশি। এ কারণে মৃত্তিকার গাছপালা ও প্রাণিকুলের জন্য পানি, গ্যাস ও পুষ্টি উপাদান পরিশোষণ ও আটকে রাখতে পারে। তৎসত্ত্বেও অধিক পরিমাণে পলিকণা সংবলিত মৃত্তিকাকে কৃষিকাজের আওতায় নিয়ে আসা তুলনামূলকভাবে কঠিন কাজ। এ ধরনের সমস্যা বিশেষভাবে ব্রহ্মপুত্র, যমুনা ও মেঘনা পললের ক্ষেত্রে সৃষ্টি হয়।  [সিরাজুল হক]

আরও দেখুন বালি