নামকরণ


নামকরণ হিন্দুদের একটি ধর্মীয় সংস্কার– নবজাতকের নামকরণ অনুষ্ঠান। জন্মের দিন অথবা জন্মের পর দশম, একাদশ বা দ্বাদশ দিনে অনুষ্ঠানের মাধ্যমে জাতকের নামকরণ করা হয়। মনুর মতে (২/৩০) দশম বা দ্বাদশ দিন হচ্ছে এ কাজের প্রশস্ত সময়; এ সময় সম্ভব না হলে যেকোনো প্রশস্ত সময়ে নামকরণ বিধেয়।

শাস্ত্রমতে শিশুর দুটি নামের বিধান আছে– একটি প্রকাশ্য, অপরটি গুপ্ত, শুধু পিতামাতার জ্ঞাতব্য। মনুর মতে (২/৩১-৩২) চতুর্বর্ণের লোকের নাম হবে যথাক্রমে শুভ, বল, ধন ও হীনতা সূচক বা সুখ, রক্ষা, পুষ্টি ও সেবাবোধক। তবে বর্তমানে এই নিয়ম বহুলাংশে শিথিল হয়েছে। নামকরণের  প্রধান অনুষ্ঠান হচ্ছে সূতিকাগ্নির অপসারণ এবং হোম ও বিশেষ মন্ত্রোচ্চারণ সহকারে আট বার ঘৃতাহুতি প্রদান। বর্তমানে সাধারণত অন্নপ্রাশনের সঙ্গেই নামকরণ করা হয়।  [সুরেশচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়]

আরও দেখুন আকিকা।