নদী গবেষণা ইনস্টিটিউট


নদী গবেষণা ইনস্টিটিউট (River Research Institute)  পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অধীন একটি স্বায়ত্তশাসিত জাতীয় প্রতিষ্ঠান। নদী গবেষণা ইনস্টিটিউট দেশের বিভিন্ন পানিসম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের টেকসই পরিকল্পনা গ্রহণ, নকশা প্রণয়ন এবং ব্যবস্থাপনা বিষয়ে সরকারকে গুরুত্বপূর্ণ সহায়তা প্রদান করে থাকে। এ ইনস্টিটিউটের বিভিন্ন কার্যক্রমের মধ্যে রয়েছে ভৌত নমুনা সমীক্ষাকার্য পরিচালনা (physical model studies), বিভিন্ন মৃত্তিকা পরামিতি (parameters) নির্দেশনা, বিভিন্ন নির্মাণ উপকরণের গুণাগুণ নিয়ন্ত্রণ, পানির গুণাগুণ বিশ্লেষণ, নদীবাহিত তলদেশীয়, ভাসমান এবং দ্রবীভূত পলল বিশ্লেষণ।

নদী গবেষণা ইনস্টিটিউট ১৯৭৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় এবং ১৯৮৪ সালে এটি বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের (বিডব্লিউডিবি) হাইড্রলিক গবেষণাগার হিসেবে পরিবৃদ্ধি লাভ করে। ১৯৯১ সালের ২০ আগস্ট এ ইনস্টিটিউট এক অধ্যাদেশ বলে (অধ্যাদেশ নং ৫৩, জুলাই ১৯৯০) বিডব্লিউডিবি থেকে পৃথক হয়ে একটি জাতীয় স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়। ফরিদপুর শহরের উপকণ্ঠে এ প্রতিষ্ঠানের সদর দপ্তর অবস্থিত।

নদী গবেষণা ইনস্টিটিউটের প্রধান দায়িত্বসমূহ হচ্ছে: (১) নদী প্রশিক্ষণ পরিকল্পনা, নদী ভাঙন নিয়ন্ত্রণ, বন্যা নিয়ন্ত্রণ, সেচ ও পানি নিষ্কাশন বিষয়ে ভৌত মডেল সমীক্ষা পরিচালনা এবং নদী প্রকৌশল, পলিপ্রবাহ নিয়ন্ত্রণ, মোহনা ও জোয়ারভাটার প্রভাব প্রভৃতি বিষয়ে গবেষণাকর্ম পরিচালনা, (২) নদীপ্রবাহ এবং পানিতাত্ত্বিক মন্ডল, পানিতত্ত্ব, ভূ-পৃষ্ঠ ও ভূগর্ভস্থ পানির ব্যবহার, পরিবেশগত বিষয়াদি, বিশেষ করে লবণাক্ততার অনুপ্রবেশ ও পানির গুণাগুণ প্রভৃতি বিষয়ে গাণিতিক মডেল সমীক্ষা পরিচালনা (৩) নদীশাসন, ভাঙন নিয়ন্ত্রণ, বন্যা নিয়ন্ত্রণ, সেচ ও নিষ্কাশন কাঠামো প্রভৃতি নির্মাণ কাজের জন্য ব্যবহার্য নির্মাণ সামগ্রীর পরীক্ষা-নিরীক্ষা যাচাই করা এবং বিভিন্ন নির্মাণ কাজের গুণাগুণ যাচাই ও মূল্যায়নকার্য পরিচালনা, (৪) উল্লিখিত বিষয়াদির ওপর প্রশিক্ষণ কর্মসূচির আয়োজন করা এবং প্রাসঙ্গিক কারিগরি জার্নাল ও রিপোর্ট প্রকাশ, (৫) উপরিউক্ত বিষয়াদির প্রসঙ্গে সরকার, স্থানীয় কর্তৃপক্ষ অথবা অন্য যে কোনো প্রতিষ্ঠানকে পরামর্শ প্রদান, (৬) এ ধরনের কর্মকান্ডে নিয়োজিত অন্যান্য দেশি অথবা বিদেশি প্রতিষ্ঠানকে সহায়তা করা এবং তাদের সঙ্গে যৌথ কর্মসূচি গ্রহণ এবং (৭) উল্লিখিত দায়িত্বসমূহ সম্পন্ন করার স্বার্থে প্রয়োজনীয় যে কোনো প্রকার কার্যক্রম গ্রহণ করা।

পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীকে সভাপতি করে গঠিত নয় সদস্যবিশিষ্ট পরিচালনা বোর্ড দ্বারা নদী গবেষণা ইনস্টিটিউট পরিচালিত হয়। নীতি নির্ধারণ বিষয়ক নির্দেশনা প্রদান, ইনস্টিটিউটের কার্যক্রম পর্যালোচনা ও মূল্যায়ন এবং গুরুত্বপূর্ণ প্রস্তাবনাসমূহ অনুমোদনের বিষয়ে বোর্ড সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে থাকে। দেশের পানি সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রকল্পে নদী গবেষণা ইনস্টিটিউট শতাধিক ভৌত মডেল সমীক্ষাকার্য পরিচালনা করেছে। উল্লেখযোগ্য কয়েকটি প্রকল্প হচ্ছে: বঙ্গবন্ধু বহুমুখী সেতু প্রকল্প, বাহাদুরাবাদ ও কামারজানিতে যমুনা তীর রক্ষা প্রকল্প এবং তিস্তা ব্যারেজ প্রকল্প। বর্তমানে এ ইনস্টিটিউট বঙ্গবন্ধু সেতু, গড়াই নদী পুনরুদ্ধার, ধলেশ্বরী সেতু ১ ও ২, ঢাকা সেতু প্রভৃতি প্রকল্পের ভৌত মডেল সমীক্ষাকার্য পরিচালনা করছে। নদী গবেষণা ইনস্টিটিউট ১৯৯১ সাল থেকে প্রতি বছর RRI Technical Journal নামে একটি গবেষণা সাময়িকী প্রকাশ করছে। এছাড়া ইনস্টিটিউট ত্রৈমাসিক নিউজ লেটার এবং বার্ষিক প্রতিবেদন প্রকাশ করে থাকে।

বিগত বছরগুলোতে নদী গবেষণা ইনস্টিটিউট বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ইনস্টিটিউটের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ স্থাপন করেছে। গড়াই নদী পুনরুদ্ধার প্রকল্পের ভৌত জল-ভূরূপতাত্ত্বিক মডেলটি (physical hydromorphological model) নেদারল্যান্ডের ডেল্ফট হাইড্রলিকস (Delft Hydraulics) এবং বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)-এর কারিগরি সহায়তায় প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিযোগিতামূলক ভবিষ্যৎ বাজারের চাহিদা মোকাবেলা করার জন্য বাংলাদেশ নদী গবেষণা ইনস্টিটিউট এর প্রাতিষ্ঠানিক দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে এবং একই সঙ্গে বুয়েট, ভারতের সেন্ট্রাল ওয়াটার অ্যান্ড পাওয়ার রিসার্চ স্টেশন, ডেনমার্কের ডেনিশ হাইড্রলিক ইনস্টিটিউট, নেদারল্যান্ডের ডেল্ফট হাইড্রলিকস এবং যুক্তরাজ্যের এইচ.আর উইলিংটন প্রভৃতি দেশি ও বিদেশি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যৌথ কার্যক্রম গ্রহণ বৃদ্ধি করে চলেছে।  [এইচ.এস মোজাদ্দাদ ফারুক]