নকশি দরমা


নকশি দরমা বাঁশের তৈরি কারুকার্যখচিত এক প্রকার বেষ্টনী। পাকা  বাঁশ খোদাই করে অথবা কাঁচা বাঁশ মোচড় দিয়ে দরমার গায়ে ফুল, লতাপাতা, পাখি ইত্যাদি ডিজাইন করা হয়। সাধারণত ঘরের পার্টিশন হিসেবে নকশি দরমা ব্যবহূত হয়। সৌখিন ব্যক্তিদের ঘরের বেড়াতেও এর ব্যবহার দেখা যায়। একে ‘বাওঝাঁপ’ও বলে। সাধারণত ঢাকার মানিকগঞ্জে এবং ময়মনসিংহের কিশোরগঞ্জ ও ত্রিশালে এ শিল্পের চর্চা হয়। এতে বাঁশের উপর পাখি, লতাপাতা ও ফুলের নকশা অাঁকা হয়। কখনও কখনও শিখা সদৃশ জালির কাজ আর মাঝখানে পুষ্পিত লতার মোটিফও থাকে। এছাড়া জাফরির নকশা, বিচিত্র রকমের জ্যামিতিক নকশা, উড়ন্ত উড়োজাহাজ ইত্যাদিও ফুটিয়ে তোলা হয়। সৈয়দ মাহবুব আলমের লোকশিল্প (১৯৯৯) এবং তোফায়েল আহমেদের লোকশিল্পের ভুবনে (১৯৯৪) নামক গ্রন্থে নকশি দরমার অনেক ছবি দেওয়া আছে। তাতে পুষ্পিত লতা, উড়ন্ত হাঁস, পানপাতা, ফুল ও জ্যামিতিক নকশার প্রচুর কাজ আছে।  [ওয়াকিল আহমদ]