দৌলতপুর থানা


Mukbil (আলোচনা | অবদান) কর্তৃক ১০:৫৭, ২০ জানুয়ারি ২০১৫ পর্যন্ত সংস্করণে

(পরিবর্তন) ←পুর্বের সংস্করণ | সর্বশেষ সংস্করণ (পরিবর্তন) | পরবর্তী সংস্করণ→ (পরিবর্তন)

দৌলতপুর থানা (খুলনা জেলা)  আয়তন: ১৩.৬২ বর্গ কিমি। অবস্থান: ২২°৫০´ থেকে ২২°৫৪´ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৮৯°২৮´ থেকে ৮৯°৩২´ পূর্ব দ্রাঘিমাংশ। সীমানা: উত্তরে খান জাহান আলী থানা, দক্ষিণে খালিশপুর থানা ও ডুমুরিয়া উপজেলা, পূর্বে দিঘলিয়া উপজেলা ও ভৈরব নদী, পশ্চিমে ডুমিরিয়া থানা।

জনসংখ্যা ১১৮৩৮০; পুরুষ ৬৩০৬৬, মহিলা ৫৫৩১৪। মুসলিম ১০৪৯৩০, হিন্দু ১২২৯৪, বৌদ্ধ ১১৪৪ এবং অন্যান্য ১২।

জলাশয় প্রধান নদী: ভৈরব।

প্রশাসন দৌলতপুর থানা গঠিত হয় ১৯১৭ সালে।

থানা
ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন মহল্লা জনসংখ্যা ঘনত্ব (প্রতি বর্গ কিমি) শিক্ষার হার (%)
শহর গ্রাম শহর গ্রাম
৬+১ (আংশিক) ৩৪ ১০৭৫৭৩ ১০৮০৭ ১০০২৪ ৬৫.৫১ ৬০.০৮
ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন
ওয়ার্ড নম্বর ও ইউনিয়ন আয়তন (বর্গ কিমি) লোকসংখ্যা শিক্ষার হার (%)
পুরুষ মহিলা
ওয়ার্ড নং ১ ৩.৩৫ ১০৬১৩ ৯৬৯৮ ৭০.১৭
ওয়ার্ড নং ২ আংশিক) ০.৭৫ ৭৪৮৬ ৬১৫২ ৬৯.২৭
ওয়ার্ড নং ৩ ৩.২০ ১২৩২৫ ১০৬৯১ ৬৩.১৪
ওয়ার্ড নং ৪ ২.০২ ৭৭৬৪ ৬৫৩৫ ৬৬.৩৬
ওয়ার্ড নং ৫ ০.৫৭ ৮২০১ ৭১১৩ ৬০.৯০
ওয়ার্ড নং ৬ ০.৪৯ ১১১৪১ ৯৮৫৪ ৬৩.২৪
আরঙ্গঘাটা ইউনিয়ন ১০ ৩.২৪ ৫৫৩৬ ৫২৭১ ৬০.০৮
DaulatpurThanaKCC.jpg

ঐতিহাসিক ঘটনাবলি ১৯৭১ সালের মে মাসের শেষদিকে শিরোমণির বাদামতলার নিকট পাকবাহিনী ১৩ জন লোককে হত্যা করে।

মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচিহ্ন ভাস্কর্য ১ (বীর বাঙালি)।

ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান মসজিদ ১৮, মন্দির ২, মঠ ১।

শিক্ষার হার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান  গড় হার ৬৬.৮৫%; পুরুষ ৭০.৭৪%, মহিলা ৬২.৪১%। উল্লেখযোগ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান: বিএল বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, দৌলতপুর আর্ট কলেজ (১৯০২), দৌলতপুর হাইস্কুল (১৮৭৪), মুহসিন মাধ্যমিক বিদ্যালয় (১৮৬৭), মহেশ্বরপাশা কেএম মাধ্যমিক বিদ্যালয় (১৯২১), মহেশ্বরপাশা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় (১৮৬৪)।

সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান ক্লাব ৬, সিনেমা হল ১, খেলার মাঠ ১৬।

জনগোষ্ঠীর আয়ের প্রধান উৎস কৃষি ৪.৪৭%, অকৃষি শ্রমিক ৬.৬৬%, শিল্প ৯.৭৩%, ব্যবসা ২৬.০২%, পরিবহণ ও যোগাযোগ ৮.৭৪%, চাকরি ২৪.২৫%, নির্মাণ ২.৪২%, ধর্মীয় সেবা ০.২৪%, রেন্ট অ্যান্ড রেমিটেন্স ১.৫০% এবং অন্যান্য ১৫.৯৭%।

কৃষিভূমির মালিকানা ভূমিমালিক ৪০.৬১%, ভূমিহীন ৫৯.৩৯%।

প্রধান কৃষি ফসল ধান, পাট, আখ, সুপারি, নারিকেল, শাকসবজি।

বিলুপ্ত বা বিলুপ্তপ্রায় ফসলাদি পান, আলু।

প্রধান ফল-ফলাদি  আম, জাম, কাঁঠাল, লিচু, পেঁপে, নারিকেল।

যোগাযোগ বিশেষত্ব রেলপথ ৩.২ কিমি।

বিলুপ্ত বা বিলুপ্তপ্রায় সনাতন বাহন পাল্কি, ঘোড়ার গাড়ি।

শিল্প ও কলকারখানা লবণ কারখানা।

কুটিরশিল্প স্বর্ণশিল্প, লৌহশিল্প, মৃৎশিল্প।

হাটবাজার ও মেলা হাটবাজার ৩০।

বিদ্যুৎ ব্যবহার এ থানার সবক’টি ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন বিদ্যুতায়ন কর্মসূচির আওতাধীন। তবে ৭৩.৪৩% পরিবারের বিদ্যুৎ ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে।

পানীয়জলের উৎস নলকূপ ৯৬.৮২%, পুকুর ০.১৩%, ট্যাপ ২.০৭% এবং অন্যান্য ০.৯৮%।

স্যানিটেশন ব্যবস্থা এ থানার ৬৬.৫৬% পরিবার স্বাস্থ্যকর এবং ৩০.৮৬% পরিবার অস্বাস্থ্যকর ল্যাট্রিন ব্যবহার করে। ২.৫৮% পরিবারের কোনো ল্যাট্রিন সুবিধা নেই।

প্রধান রপ্তানিদ্রব্য  লবণ, গুড়।

স্বাস্থ্যকেন্দ্র থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ১, পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্র ৩, ইউএফএইচপি স্বাস্থ্যকেন্দ্র ১।  [একরামুল কবির]

তথ্যসূত্র আদমশুমারি রিপোর্ট ২০০১, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো।