থের-থেরীগাথা


থের-থেরীগাথা বৌদ্ধধর্মের দুটি গুরুত্বপূর্ণ গ্রন্থ থেরগাথা ও থেরীগাথার সংক্ষিপ্ত নাম। থেরগাথা  পালি সুত্তপিটকের অন্তর্ভুক্ত খুদ্দকনিকায়ের একটি গ্রন্থ। এতে ১০৭জন স্থবিরের অভিজ্ঞতা, আত্মোপলব্ধি, জীবন-সাধনা ও অর্হত্ব লাভ ১০৭টি স্বরচিত কবিতায় ব্যক্ত করা হয়েছে। কবিতাগুলিতে বৌদ্ধ জীবনাদর্শ ও ধর্মতত্ত্ব ব্যাখ্যাত হয়েছে এবং ভাব প্রকাশ ও প্রকৃতির বর্ণনায় ভিক্ষুদের কাব্যপ্রতিভা পরিস্ফুট হয়েছে।

থেরীগাথা হচ্ছে থেরগাথারই অনুরূপ খুদ্দকনিকায়ের অপর একটি গ্রন্থ। এতে ৭৩জন থেরী অর্থাৎ ভিক্ষুনীর স্বরচিত ৭৩টি কবিতায় ব্যক্ত হয়েছে তাঁদের ব্যক্তিগত জীবনের অভিজ্ঞতা ও অনুভূতি, সুখ-দুঃখ এবং সমাজে নারীদের করুণ অবস্থা। থেরীগাথায় সুললিত  কাব্য ও ছন্দের মাধ্যমে বৌদ্ধজীবনের নৈতিক আদর্শ, আধ্যাত্মিক প্রশান্তি ও অর্হত্ব লাভ ছাড়াও সমাজচিত্র উন্মোচিত হয়েছে। দুটি গ্রন্থই বৌদ্ধদের দৈনন্দিন জীবনচর্যায় বিশেষ উপযোগী।  [বিনয়েন্দ্র চৌধুরী]