তুরাগ থানা


তুরাগ থানা (ঢাকা মেট্রোপলিটন)  আয়তন: ১২.১৭ বর্গ কিমি। অবস্থান: ২৩°৫২´ থেকে ২৩°৫৩´ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৯০°২১´ থেকে ৯০°২৩´ পূর্ব দ্রাঘিমাংশ। সীমানা: উত্তরে গাজীপুর সদর উপজেলা, দক্ষিণে পল্লবী থানা, পূর্বে গাজীপুর সদর উপজেলা ও উত্তরা থানা, পশ্চিমে সাভার উপজেলা।

জনসংখ্যা ৫৩৫৫৮; পুরুষ ২৮৬৪২, মহিলা ২৪৯১৬। মুসলিম ৫১৫৪৫, হিন্দু ১৮৭৮, বৌদ্ধ ১২১ এবং অন্যান্য ১৪।

জলাশয় প্রধান নদী: তুরাগ। টঙ্গী খাল ও ঠাঠির বিল উল্লেখযোগ্য।

প্রশাসন উত্তরা থানার হরিরামপুর ইউনিয়নের অংশবিশেষ নিয়ে ২০০৫ সালের ২৭ জুন তুরাগ থানা গঠিত হয়।

থানা
ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন মহল্লা জনসংখ্যা ঘনত্ব (প্রতি বর্গ কিমি) শিক্ষার হার (%)
শহর গ্রাম শহর গ্রাম
১ (আংশিক) ১২ - ৫৬৯৭৩ ৪৪০১ - ৬০.৫৪
ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন
ওয়ার্ড নম্বর ও ইউনিয়ন আয়তন (বর্গ কিমি) লোকসংখ্যা শিক্ষার হার (%)
পুরুষ মহিলা
হরিরামপুর ইউনিয়ন (আংশিক) ১২.১৭ ২৮৬৪২ ২৪৯১৬ ৬০.৫৪

সূত্র আদমশুমারি রিপোর্ট ২০০১, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো।

TuragThana.jpg

ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান মসজিদ ৯০, মন্দির ১, পূজামন্ডপ ৮। উল্লেখযোগ্য ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান: রোসাদিয়া শাহী জামে মসজিদ, তুরাগ থানা শাহী জামে মসজিদ, বাউনিয়া বায়তুস শরীফ জামে মসজিদ, দলিপাড়া জামে মসজিদ, ধউর শিব মন্দির।

শিক্ষার হার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান  গড় হার ৬০.৫৪%; পুরুষ ৬৫.৬২%, মহিলা ৫৪.৭২%। বিশ্ববিদ্যালয় ১, কলেজ ৩, মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৬, প্রাথমিক বিদ্যালয় ২৬, কিন্ডার গার্টেন ৯, ট্রেনিং সেন্টার ১৯, এতিমখানা ৬, মাদ্রাসা ২৫। উল্লেখযোগ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান: ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এগ্রিকালচার অ্যান্ড টেকনোলজি, তুরাগ বিজনেস অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট কলেজ, তুরাগ ম্যানেজমেন্ট কলেজ, সি.এস.ডি কলেজ, ইমারসন হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজ, কামারপাড়া হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজ, ইসলামী এডুকেশন সোসাইটি স্কুল অ্যান্ড কলেজ, দিয়াবাড়ী মডেল হাইস্কুল, বাউনিয়া আব্দুল জলিল আদর্শ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, কামারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ধউর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান ১৯, খেলার মাঠ ৩, কমিউনিটি সেন্টার ৭।

গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা বা দর্শনীয় স্থান প্রিয়াংকা শু্যটিং জোন, হোটেল তাজমহল, কাশ্মীর গার্ডের শু্যটিং জোন।

জনগোষ্ঠীর আয়ের প্রধান উৎস কৃষি ১১.৩৭%, অকৃষি শ্রমিক ৪.০৩%, শিল্প ১.২১%, ব্যবসা ২৭.০৪%, পরিবহণ ৫.৬৬%, নির্মাণ ৪.৩০%, চাকুরি ৩০.৩০%, ধর্মীয় সেবা ০.২৪%, রেন্ট অ্যান্ড রেমিট্যান্স ২.১৩% এবং অন্যান্য ১৩.৭২%।

কৃষিভূমির মালিকানা ভূমিমালিক ৪৩.৯৭%, ভূমিহীন ৫৬.০৩%।

প্রধান কৃষি ফসল ধান, সরিষা, শাকসবজি।

বিলুপ্ত বা বিলুপ্তপ্রায় ফসল  পাট, গম, তৈলবীজ, ডাল।

প্রধান ফল-ফলাদি আম, কাঁঠাল, কলা, জাম, নারিকেল।

মৎস্য, গবাদিপশু ও হাঁস-মুরগির খামার এ উপজেলায় মৎস্য, গবাদিপশু ও হাঁস-মুরগির খামার রয়েছে।

যোগাযোগ বিশেষত্ব মোট সড়ক ১৬.২০ বর্গ কিমি।

বিলুপ্ত বা বিলুপ্তপ্রায় সনাতন বাহন গরুর গাড়ি, পাল্কি।

শিল্প ও কলকারখানা পোশাকশিল্প, হোসিয়ারি শিল্প, সোয়েটার শিল্প, চক পাউডার শিল্প, রং ও ফেব্রিকস প্রস্ত্তত কারখানা, চালকল, প্লাস্টিক শিল্প, বিল্ডিং ও নির্মাণ শিল্প।

কুটিরশিল্প স্বর্ণশিল্প, লৌহশিল্প, হস্তশিল্প, বাঁশের কাজ, বেতের কাজ, কাঠের কাজ।

হাটবাজার, শপিং সেন্টার  হাটবাজার ১২। তসলিমা প্লাজা, কালিয়ারটেক বাজার, রূপালী সমবায় মার্কেট, কামারপাড়া বাজার, রাজাবাড়ী বাজার, ভাই ভাই সুপার মার্কেট, খায়েরটেক বাজার উল্লেখযোগ্য।

প্রধান রপ্তানিদ্রব্য ধান, শাকসবজি, তৈরি পোশাক, হোসিয়ারী সামগ্রী, বালু, চক পাউডার, প্লাস্টিক সামগ্রী।

বিদ্যুৎ ব্যবহার এ থানার সবক’টি মৌজা বিদ্যুতায়ন কর্মসূচির আওতাধীন। তবে ৮৯.০২% পরিবারের বিদ্যুৎ ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে।

পানীয়জলের উৎস ট্যাপ ৩.৬১%, নলকূপ ৯২.০৬%, পুকুর ০.৩৬% এবং অন্যান্য ৩.৯৭%।

স্যানিটেশন ব্যবস্থা ৮২.৫০% পরিবার স্বাস্থ্যকর এবং ১৩.৩৭% পরিবার অস্বাস্থ্যকর ল্যাট্রিন ব্যবহার করে। ৪.১৩% পরিবারের কোনো ল্যাট্রিন সুবিধা নেই।

স্বাস্থ্যকেন্দ্র হাসপাতাল ৪, দাতব্য চিকিৎসালয় ১। ইস্ট ওয়েস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, আহসানিয়া মিশন ক্যান্সার হাসপাতাল, তুরাগ মেডিকেল অ্যান্ড ডায়গনস্টিক সেন্টার, মানামু জেনারেল হাসপাতাল উল্লেখযোগ্য।

এনজিও ব্র্যাক, আশা।  [লিলীমা আহমেদ]

তথ্যসূত্র  আদমশুমারি রিপোর্ট ২০০১, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো; তুরাগ থানা মাঠ পর্যায়ের প্রতিবেদন ২০১০।