তান্ত্রিক


তান্ত্রিক  বেদবিরোধী তন্ত্রসাধক। হিন্দু অথবা বৌদ্ধ ধর্মের বর্ণবাদ ও বিধি-নিষেধ অতিক্রম করে এরা পার্থিব জীবন ও মোক্ষের অদ্বৈততা উপলব্ধির মাধ্যমে জীবন্মুক্তি লাভ করে থাকে। তান্ত্রিকরা সাধারণত পতিতা এবং নিচু শ্রেণীর ব্যক্তিদের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করে, চাঁদনি রাতে শ্মশানঘাটে মৃতদেহের উপর বসে ধ্যান করে, এমনকি মানুষের মাংসও খায়। এরা সচেতনভাবে হিন্দু ও বৌদ্ধ ধর্মের আদর্শের বিরোধিতা করে এবং পঞ্চ ম-কারের (মদ্য, মাংস, মৎস্য, মুদ্রা ও মৈথুন) সাধনা করে। পঞ্চ ম-কার হচ্ছে পঞ্চগব্যের (দধি, দুগ্ধ, ঘৃত, গোমূত্র ও গোময় গরু– থেকে প্রাপ্ত এ পাঁচটি দ্রব্য) বিপরীত। পঞ্চগব্য দিয়ে ব্রাহ্মণরা শুদ্ধিকার্য পরিচালনা করে।

তান্ত্রিকরা রূপক অর্থে হত্যা, মিথ্যাচার, চৌর্য এবং মৈথুনে বিশ্বাস করে। এগুলি বৌদ্ধ সন্ন্যাসব্রত অনুসারে অত্যন্ত গর্হিত অপরাধ। এর ফলে তান্ত্রিকরা কেবল মুক্তিই লাভ করে না, জাদুকরি ক্ষমতা বা সিদ্ধিও লাভ করে। এর দ্বারা তারা অলোকদৃষ্টিশক্তি অর্জন করে, শূন্যে ওড়ার ক্ষমতা লাভ করে এবং ধাতুকে স্বর্ণে পরিণত করার কৌশল আয়ত্ত করে। তান্ত্রিকদের পরিচয় পাওয়া যায় Buddhist Mantrasiddhas এবং Saivite Kapalikas-এর বর্ণনায়। তান্ত্রিকরা মানুষের মাথার খুলি হাতে নিয়ে ঘুরে বেড়ায়।  [রবার্ট এ ইয়েলে]