তাজউদ্দীন কুরাইশী


তাজউদ্দীন কুরাইশী  ১৩০৩ খ্রিস্টাব্দে হজরত শাহজালাল (রঃ)-এর সঙ্গী হিসেবে তরফের রাজা আচক নারায়ণের বিরুদ্ধে যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। শাহ জালাল (রঃ) ছিলেন সিলেট অঞ্চলে ইসলাম প্রচারের অগ্রদূত। তাজউদ্দীন কুরাইশী ছিলেন হজরত আবুবকরের (রাঃ) বংশধর এবং তিনি ইয়েমেনে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা কিয়ামউদ্দীন ছিলেন একজন সুফি দরবেশ।সিলেট বিজয়ের পর তিনি প্রথমে কাজী এবং পরে দীউয়ান পদে নিয়োগ লাভ করেন। অতঃপর তিনি দিনারপুর (প্রাচীন লাউর অঞ্চলে) সীমান্ত চৌকির প্রশাসনিক দায়িত্বে নিয়োজিত হন। সেখানে তিনি একটি খানকাহ প্রতিষ্ঠা, মসজিদ নির্মাণ ও পুকুর খনন করেন। হবিগঞ্জের বিভিন্ন অংশে তিনি ইসলাম প্রচারে অংশ নেন। তিনি একজন আলেম ও সোহরাওয়ার্দী তরিকার সুফি সাধক হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন। চৌদ্দ শতকের প্রথমার্ধে তিনি নিজ চৌকিতে পরলোক গমন করেন। সেখানেই তাঁর মাজার রয়েছে।  [দেওয়ান নূরুল আনোয়ার হোসেন চৌধুরী]