জাতীয় বিজ্ঞান গ্রন্থাগার


জাতীয় বিজ্ঞান গ্রন্থাগার  ১৯৮১ সালে  ব্যান্সডক (Bangladesh National Scientific and Technical Documentation Centre/BANSDOC)-এর একটি উন্নয়ন প্রকল্প হিসেবে প্রতিষ্ঠিত। এর প্রধান লক্ষ্য বই সংগ্রহ ও পড়তে দেওয়া এবং দেশের বিজ্ঞানী, শিক্ষক, ছাত্র ও গবেষকদের ব্যবহারোপযোগী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক বই প্রকাশ করা। সরকার কর্তৃক অনুমোদিত একটি জাতীয় বিশেষজ্ঞ কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী এর সম্পদ সংগ্রহ করা হয়। যে সমস্ত মূল্যবান বই এবং জার্নাল দেশের গবেষণা ও উন্নয়ন প্রতিষ্ঠান এবং বিশ্ববিদ্যালয়/বিভাগ সংগ্রহ করতে পারে না সাধারণত সেসব বই-পুস্তক এ প্রতিষ্ঠান সংগ্রহ করে থাকে। এর কার্যক্রমের আওতায় শিক্ষার সর্বস্তরে বিশেষ করে মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক স্তরে বৈজ্ঞানিক বই প্রকাশনা এবং বিতরণের ব্যবস্থা রয়েছে। গ্রন্থাগারটি ঢাকার এলিফ্যান্ট রোডের বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা প্রতিষ্ঠান ক্যাম্পাসে অবস্থিত।

এটি মূলত দেশের সব গ্রন্থাগারের সম্পদের সম্পূরণের একটি এজেন্সি এবং দেশের বৈজ্ঞানিক তথ্য সম্পদের ব্যবহারের জন্য রেফারেন্স সেন্টার ও ক্লিয়ারিং হাউস হিসেবেও কাজ করে থাকে। সে অনুযায়ী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির জাতীয় গ্রন্থাগার হিসেবে এর কাজের পরিসর বর্ধিত করা হয়। নতুন বই সংযোজন এবং নতুন নতুন বিদেশি সাময়িকী সংগ্রহের জন্য এ গ্রন্থাগার তথ্য সেবার উন্নয়ন অব্যাহত রেখেছে। গ্রন্থাগারটি জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক প্রায় ৯০টি বৈজ্ঞানিক এবং প্রযুক্তিগত সাময়িকীর গ্রাহক। বর্তমানে এখানে প্রায় ১৭,০০০ বই রয়েছে। এ গ্রন্থাগারের জন্য একটি জাতীয় উপদেষ্টা কমিটি এবং ১৩ জন কমকর্তা-কর্মচারী রয়েছেন।  [বায়েজীদ আকতার]