চট্টগ্রাম মিউনিসিপ্যাল মডেল হাইস্কুল


চট্টগ্রাম মিউনিসিপ্যাল মডেল হাইস্কুল  ১৮৮০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। চট্টগ্রাম শহরের ফিরিঙ্গি বাজারে বর্তমান ব্যাপটিস্ট মিশন চার্চ-এর স্থানটিতে পটিয়ার গৈরলা গ্রামের বিদ্যোৎসাহী ব্যক্তিত্ব শ্যামাচরণ সেন একটি মধ্য ইংরেজি বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন এবং তিনি এ স্কুলের প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। কিছুদিন পর পৌরসভার সহায়তায় বিদ্যালয়টি বর্তমান স্থানে স্থানান্তরিত হয় এবং এটিকে উচ্চ ইংরেজি বিদ্যালয়ে উন্নীত করা হয়। বিদ্যালয়ের পরিচালনার ভারও পৌরসভা গ্রহণ করে এবং বিদ্যালয় ভবন নির্মাণের জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান করে। তবে বিদ্যালয়ের আর্থিক অনটন এরপরও অব্যাহত থাকে। ১৮৮২ সালে জমিদার রায়বাহাদুর গোলকচন্দ্র চৌধুরী নগদ ২,০০০ টাকা দান করেন। এতে বিদ্যালয়ের আর্থিক ভিত্তি কিছুটা দৃঢ় হয় এবং বিদ্যালয়টি একটি আদর্শ বিদ্যালয় হিসেবে গড়ে উঠতে থাকে। জমিদার রায়বাহাদুর প্রসন্নকুমার রায় এ স্কুলে বিনা বেতনে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন এবং স্কুলটির সার্বিক সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখেন। ১৯৪৭ সালের দেশ বিভাগের পর দুর্গামোহন গুহ এবং হরিদয়াল গুপ্তের যুগকে মিউনিসিপ্যাল স্কুলের স্বর্ণযুগ বলা হয়। ১৯৯২ সালে এ স্কুলের প্রধান শিক্ষক এ. কে. এম মাহমুদুল হক জাতীয় পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসেবে পুরস্কার পেয়েছেন। ১৯৪৭ সালে এ বিদ্যালয়ের ছাত্র পার্থসারথী গুপ্ত কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যাট্রিকুলেশন পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করেন। বর্তমানে (২০১০) বিদ্যালয়ে ছাত্রছাত্রী সংখ্যা ২,৪০০ এবং শিক্ষকশিক্ষিকার সংখ্যা ৫১। বিদ্যালয়টিতে কম্পিউটার ল্যাব, সাইন্সল্যাব এবং আধুনিক সুযোগসুবিধা সম্বলিত একটি পাঠাগার রয়েছে। লেখাপড়ার পাশাপাশি বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কার্যক্রম, শিল্পকলা ও বিজ্ঞান চর্চা, বিএনসিসিরোভার স্কাউট ও রেডক্রিসেন্ট কার্যক্রম, বিতর্ক প্রতিযোগিতা ও  খেলাধুলায় নিয়মিত অংশগ্রহণ করে।  [সাদাত উল্লাহ খান]