খান, গজনফর আলী


খান, গজনফর আলী (১৮৭২-১৯৫৯)  পদস্থ সরকারি কর্মকর্তা, সমাজসেবী। ১৮৭২ সালে সিলেটের বিরাহিমপুর গ্রামে তাঁর জন্ম। পিতা মোহাম্মদ আবিদ খান ছিলেন  মুগল আমলে বাংলায় আগত এক আফগান দলপতির অধস্তন বংশধর।

গজনফর আলী খান ১৮৯০ সালে কলকাতা মাদ্রাসা থেকে এনট্রান্স এবং ১৮৯২ সালে এফ.এ পাস করেন। উচ্চ শিক্ষার জন্য ১৮৯৩ সালে তিনি বিলাত গমন করেন। তিনি কেম্ব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বি.এ পাস করেন। গজনফর আলী খান ১৮৯৭ সালে ইন্ডিয়ান সিভিল সার্ভিস (আই.সি.এস) পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। তিনি ছিলেন বাংলা ও আসামের প্রথম মুসলিম আই.সি.এস। ১৮৯৯ সালের ডিসেম্বর মাসে তিনি ভারতীয় সিভিল সার্ভিসে যোগ দেন। কর্মজীবনে তাঁর অধিকাংশ সময় কেটেছে ভারতের মধ্যপ্রদেশে। ১৯১৫ সালে গজনফর আলী খান ডেপুটি কমিশনার পদে উন্নীত হন। ১৯২৬ সালে তিনি পদোন্নতি লাভ করে নাগপুরের কমিশনার হিসেবে যোগ দেন। ১৯২৮ সালে ভারত সরকার তাঁকে আইন পরিষদের সদস্য মনোনীত করে। বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালনের পর ১৯৩২ সালে গজনফর আলী খান নাগপুর ডিভিশনের কমিশনার হিসেবে অবসর গ্রহণ করেন। তাঁর কর্মদক্ষতার স্বীকৃতিস্বরূপ ব্রিটিশ সরকার তাঁকে ‘অফিসার অব দি ব্রিটিশ এম্পায়ার’ এবং সি.আই.ই উপাধিতে ভূষিত করে।

অকৃতদার গজনফর আলী খান শেষজীবনে শহর ছেড়ে সিলেটের নিভৃত গ্রামে এসে পল্লী উন্নয়নে মনোনিবেশ করেন। তিনি গ্রামে জলাশয় খনন, রাস্তাঘাট নির্মাণ, চিকিৎসালয়, স্কুল, কৃষি শিক্ষা ও তাঁতকেন্দ্র স্থাপন করে গ্রাম উন্নয়নের ক্ষেত্রে অনুসরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করে গেছেন। ১৯৫৯ সালের ২৬ মার্চ সিলেটে তাঁর মৃত্যু হয়।  [দেলওয়ার হাসান]