খঞ্জরি


খঞ্জরি

খঞ্জরি  আনদ্ধ জাতীয় তালবাদ্যযন্ত্র। এর গঠনপ্রক্রিয়া খুবই সহজ।  নিম বা  কাঁঠাল কাঠের তৈরি একটি পাতলা চাকতির এক পাশ চামড়া দিয়ে ছাওয়া হয়, অপর পাশ থাকে খোলা। চাকতির গায়ে সমান দূরত্বে কয়েকটি ছিদ্র করে একাধিক ধাতব পাত লাগানো হয়। যন্ত্রটি বাজানোর সময় এগুলি থেকে ঝনঝন ধ্বনি ওঠে। চামড়ার ওপর কখনও আঙ্গুলের টোকা দিয়ে, কখনও বা তালুর আঘাতে তাল সঙ্গত করা হয়। এদিক থেকে খঞ্জরিকে আনদ্ধ ও ঘন বাদ্যযন্ত্রের মিশ্রিত রূপ বলা যায়।

ধাতব পাত থেকে ঝনঝন এবং চামড়ার ছাউনি থেকে ঠপঠপ ধ্বনি সৃষ্টি হয়। বড় আকারের খঞ্জরি ‘ডফ’ বা ‘ডম্ফ’ নামে পরিচিত।  লোকসঙ্গীত ও লোকনৃত্যের  বাদ্যযন্ত্র হিসেবে খঞ্জরির ব্যবহার বাংলাসহ ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলে প্রচলিত। বাংলাদেশে  জারি,  ঘাটু ইত্যাদি গান ও নাচের আসরে এবং বাজি খেলায় অন্য বাদ্যযন্ত্রের সঙ্গে খঞ্জরিও বাজানো হয়। মুকুন্দরামের চন্ডীমঙ্গলে নাচের তালবাদ্যরূপে ডম্ফ বাজানোর কথা আছে।  [ওয়াকিল আহমদ]