উপজেলা নির্বাহী অফিসার


উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও)  উপজেলার প্রধান নির্বাহি কর্মকর্তা। জেনারেল এরশাদের সামরিক সরকার ১৯৮২ সালে  প্রশাসনিক পুনর্গঠন সংস্কার ও কমিটি গঠন করে। এ কমিটির সুপারিশসমূহের অন্তর্ভুক্ত ছিল থানা পর্যায়ে সরাসরি নির্বাচিত একজন চেয়ারম্যানসহ উপজেলা পরিষদ নামে একটি প্রতিনিধিত্বশীল  স্থানীয় সরকার ব্যবস্থার প্রবর্তন। সরকার সুপারিশটি গ্রহণ করে এবং তদনুসারে শহর এলাকার বাইরে প্রতিটি থানাকে উপজেলায় রূপান্তরিত করা হয়। প্রথম অবস্থায় থানা নির্বাহি অফিসারের (পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার) একটি পদ সৃষ্টি করা হয়। প্রায় একই সময় সকল মহকুমা জেলায় উন্নীত হয়। জাতীয় ও আঞ্চলিক গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়ন কর্মকান্ড ছাড়া স্থানীয় পর্যায়ের সকল উন্নয়ন কর্মকান্ডের দায়িত্ব উপজেলা পরিষদের উপর ন্যস্ত করা হয়। এরূপ সিদ্ধান্তও গৃহীত হয় যে, নির্বাচিত চেয়ারম্যান দায়িত্ব গ্রহণ না করা পর্যন্ত উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করবেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার।

সাধারণত বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসের প্রশাসনিক ক্যাডারভুক্ত ঊর্ধ্বতন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের ইউএনও পদে নিয়োগ দেওয়া হয়। তার উপর ন্যস্ত দায়িত্বের মধ্যে রয়েছে : (১) নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যানের স্টাফ-অফিসার হিসেবে কাজ করা এবং সে ক্ষমতাবলে উপজেলা পরিষদের নীতি ও সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে চেয়ারম্যানকে সহায়তা দান; (২) সমন্বিত উপজেলা উন্নয়ন পরিকল্পনাসহ উপজেলা পর্যায়ে সকল প্রশাসনিক/উন্নয়ন কর্মকান্ড তত্ত্বাবধানে পরিষদ/চেয়ারম্যানকে সাহায্য করা; (৩) ফৌজদারি দন্ডবিধির ১৪৪ ধারার অধীনে ইউএনও ক্ষমতা প্রয়োগ করবেন এবং উপজেলা ম্যাজিষ্ট্রেটের অনুপস্থিতিতে সাধারণত বিভিন্ন মামলা গ্রহণ, জামিনের শুনানি, মুলতবি মঞ্জুর ইত্যাদি বিষয় ফয়সালার জন্য কোর্টে বসবেন; (৪) মুন্সেফ ও ম্যাজিস্ট্রেট ব্যতীত উপজেলা পর্যায়ের সকল কর্মকর্তার গোপন বার্ষিক প্রতিবেদন প্রস্ত্তত; (৫) প্রাকৃতিক দুর্যোগের পর জরুরি ত্রাণতৎপরতায় অংশগ্রহণ এবং উপজেলা পরিষদ/চেয়ারম্যানের তত্ত্বাবধানে বন্টনের জন্য খাদ্য ও অন্যান্য দ্রব্যাদি গ্রহণ; (৬) রাজস্ব ও বাজেট প্রশাসন তত্ত্বাবধান ও নিয়ন্ত্রণ; (৭) উপজেলা প্রশাসন বিষয়ে সকল সরকারি নির্দেশাবলির অনুসরণ নিশ্চিতকরণ; (৮) উপজেলা পর্যায়ে সকল প্রশিক্ষণ কর্মকান্ড সমন্বয়; (৯) মুন্সেফ ব্যতীত সকল অফিস-প্রধানের ভ্রমণ-বিলে প্রতিস্বাক্ষর দান এবং নৈমিত্তিক ছুটি মঞ্জুর; (১০) তার অধীনস্থ কর্মকর্তা/কর্মচারীদের বেতন গ্রহণ ও বন্টন; (১১) অধীনস্থ কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের কার্যাদি তত্ত্বাবধান; (১২) প্রোটোকল সম্পর্কিত দায়িত্ব পালন এবং সবশেষে (১৩) সরকার অথবা উপজেলা পরিষদ/চেয়ারম্যান কর্তৃক তার উপর ন্যস্ত অন্যান্য দায়িত্ব সম্পাদন।

উল্লেখ্য, বিশ শতকের নববইয়ের দশকের শুরুতে উপজেলা ব্যবস্থা বিলুপ্ত হওয়ার ফলে ‘উপজেলা নির্বাহী অফিসার’ পদবি ‘থানা নির্বাহী অফিসার’ পদবিতে পরিবর্তিত হয়; কিন্তু নববইয়ের দশকের শেষভাগ থেকে এ পদবি পুনরায় ‘উপজেলা নির্বাহী অফিসার’-এ রূপান্তরিত হয়।  [এ.এম.এম শওকত আলী]