ইসলাম, নওয়াব সিরাজুল


ইসলাম, নওয়াব সিরাজুল (১৮৪৫-১৯২৩)  আইনজীবী ও সমাজ সেবক। তিনি ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলার নবীনগর উপজেলার পিয়ারাকান্দিতে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা কাজী মুহম্মদ কাজেম কোম্পানি আমলে একজন সদর আমিন (রাজস্ব বিচার কর্মকর্তা) ছিলেন। ১৮৬৭ সালে ঢাকা কলেজ থেকে বি.এ পাস করার পর সিরাজুল ইসলাম ঢাকার বিখ্যাত আর্মেনীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পোগোজ স্কুল-এর সহকারী প্রধান শিক্ষক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। পরবর্তী সময়ে বি.এল ডিগ্রি লাভ করে তিনি ১৮৭৩ সালে কলকাতা হাইকোর্টে আইন ব্যবসা শুরু করেন। ১৮৮৫ সালে তিনি সেন্ট্রাল ন্যাশনাল মোহামেডান অ্যাসোসিয়েশনএর সহকারী সম্পাদক নির্বাচিত হন। এর আগে ১৮৭৫ সালে তিনি কলকাতা পৌরসভার কমিশনার ছিলেন। সিরাজুল ইসলাম ১৮৯৩ ও ১৯০২ সালে বঙ্গীয় আইন পরিষদে মনোনীত সদস্য ছিলেন। তিনি বেঙ্গল প্রভিন্সিয়াল এডুকেশন্যাল কনফারেন্সের অবৈতনিক সদস্য ছিলেন। সে সময় জনমত গঠনে এই সংস্থা প্রভাবশালী ফোরাম হিসেবে কাজ করেছিল। তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেটে সরকার মনোনীত সদস্যও ছিলেন।

সিরাজুল ইসলাম প্রথম থেকেই বঙ্গভঙ্গ এর বিরোধী ছিলেন। ১৯০৪ সালে কলকাতায় সেন্ট্রাল ন্যাশনাল মোহামেডান অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত সভায় তিনি  বঙ্গভঙ্গের নিন্দা করেন। পরবর্তী সময়ে এই বিষয়ে তাঁর মতের পরিবর্তন ঘটে। স্বীয় সমাজ ও ব্রিটিশ রাজের প্রতি তাঁর অবদানের জন্য ১৯১১ সালে তাঁকে সরকার ‘নওয়াব’ উপাধি প্রদান করে। এর পূর্বে ১৮৮৭ সালে তিনি ‘খান বাহাদুর’ খেতাব পান। নাথান কমিশন এর (১৯১২) সদস্য হিসেবে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় অবদান রাখেন। নওয়াব সিরাজুল ইসলাম এর মৃত্যু হয় ১৯২৩ সালে কলকাতায়। [গোলাম কিবরিয়া ভূইয়া]