আহমদ, খানবাহাদুর একিনউদ্দিন


আহমদ, খানবাহাদুর একিনউদ্দিন (১৮৬২-১৯৩৩)  আইনজীবী, সমাজসেবক ও লেখক। তিনি ১৮৬২ সালে তৎকালীন জলপাইগুড়ি জেলার বোদা থানার চন্দনবাড়ী গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। চন্দনবাড়ী মডেল স্কুলে তাঁর শৈশব শিক্ষা শুরু হয়। তিনি জলপাইগুড়ি জিলা স্কুল থেকে ১৮৭৮ সালে এন্ট্রান্স পাস করেন। ১৮৮৪ সালে কলকাতা প্রেসিডেন্সী কলেজ থেকে গ্রাজুয়েশন লাভ করেন। ১৮৮৬ সালে তিনি বি. এল পরীক্ষা পাস করেন এবং ১৮৯২ সালে দিনাজপুর বারে যোগদান করেন। তৎকালীন দিনাজপুরে তিনি ছিলেন প্রথম মুসলিম গ্রাজুয়েট এবং দিনাজপুর বারে ইংরেজি শিক্ষানবিশ প্রথম মুসলিম আইনজীবী।

একিনউদ্দিন আহমদ মুসলমানদের স্বার্থ রক্ষার জন্য ১৮৯৪ সালে ‘দি মোহামেডান এসোসিয়েশন অব দি আঞ্জুমান-ই-ইসলামিয়া দিনাজপুর’ গঠন করেন। তিনি এ সংগঠনের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ১৯০৫ সালে বঙ্গভঙ্গ আন্দোলনের পটভূমিতে তিনি ‘দিনাজপুর মুসলিম সভা’ নামে অপর একটি সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেন এবং মুসলমানদের স্বার্থরক্ষার জন্য ব্রিটিশ সরকারের প্রতি সমর্থন জানান। মুসলিম ছাত্রদের লেখাপড়ার সুবিধার্থে তাঁর নেতৃত্বে ১৯১০ সালে দিনাজপুর জিলা স্কুলের পাশে ‘মোহামেডান স্টুডেন্টস এডুকেশন বোর্ডিং’ নামক একটি ছাত্রাবাস প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯১৭ সালে কলকাতায় অনুষ্ঠিত প্রথম মুসলিম সাহিত্য সম্মেলনে তিনি সভাপতিত্ব করেন।

একিনউদ্দিন আহমদ ১৯২১ সালে  খিলাফত আন্দোলন এ যোগ দেন। ১৯২০-২৩ সালে দিনাজপুর জিলার একমাত্র মুসলিম নির্বাচনী এলাকা থেকে বঙ্গীয় আইন পরিষদের তিনি সদস্য ছিলেন। ১৯২৫ সালে তিনি ব্রিটিশ সরকার কর্তৃক ‘খান বাহাদুর’ উপাধিতে ভূষিত হন। লেখক হিসেবেও তিনি ছিলেন সুপরিচিত। তাঁর রচিত একটি উল্লেখযোগ্য গ্রন্থ হচ্ছে ‘ইসলাম ও ধর্মনীতি’। ১৯৩৩ সালে তাঁর মৃত্যু হয়।  [মুহম্মদ মনিরুজ্জামান]