আদ্য পরিচয়


আদ্য পরিচয়  সুফিপ্রভাবিত যোগশাস্ত্রের তত্ত্বকাব্য। পশ্চিমবঙ্গের মালদহের শেখ জাহেদ এর রচয়িতা। কবি হেঁয়ালির ভাষায় কাব্যমধ্যে যে রচনাকাল দিয়েছেন তা হলো ১৪২০ শকাব্দ বা ১৪৯৮ খ্রিস্টাব্দ। গ্রন্থে ৮টি অধ্যায় আছে, যথা: সৃষ্টিতত্ত্ব, জন্মতত্ত্ব, জন্মক্ষণ বিচার, গর্ভের বিচার, দশরত্ন বিচার, দশদ্বার বিচার, দেহতত্ত্ব বিচার ও আউটি বিচার। এসব অধ্যায়ে সৃষ্টিরহস্য, মানবজীবন ও দেহতত্ত্ব সম্পর্কে জ্ঞান এবং আসন-প্রাণায়ামাদি দ্বারা যোগসাধনায় সিদ্ধিলাভের কথা আছে। এতে বলা হয়েছে: বিশ্বব্রহ্মান্ডের যাবতীয় বিষয় মানবদেহে বিদ্যমান; এমনকি, ঈশ্বর স্বয়ং মানবদেহেই বিরাজ করেন। স্পষ্টত এতে সুফির মারিফত, হিন্দুর  তন্ত্র ও নাথের  যোগ এ ত্রিধারার মিশ্রণ আছে। গ্রন্থের উদ্দেশ্য সন্বন্ধে কবি বলেন: ‘গর্ভতন্ত্র যোগতন্ত্র সিদ্ধের কাহিনী। বুঝিলে মুকতি হএ সুনিতে মধুর বাণী\’ শেখ জাহেদের শরিয়তবিরোধী এরূপ বক্তব্যে চিন্তার স্বাধীনতা ও মুক্তচিন্তার পরিচয় আছে। কাব্যে রাগ-রাগিণীর উল্লেখ থাকায় এটি গীত হতো বলে অনুমিত হয়। [ওয়াকিল আহমদ]