আদ্যঋতু


আদ্যঋতু  লোকসংস্কারবিশেষ। নারীগর্ভের উর্বরতাসূচক এ সংস্কারটি বাংলার লোকসমাজে কোথাও কোথাও প্রচলিত আছে। নারীসমাজ মেয়েদের প্রথম রজোদর্শনে কতিপয় বিধিনিষেধ এবং আচারানুষ্ঠান পালন করে থাকে। তাদের বিশ্বাস, এতে নারীর রজঃপ্রবৃত্তি পরবর্তীকালে নিয়মিত ও নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত স্থায়ী হবে। নারীর এ স্বাভাবিক রজঃপ্রবৃত্তিই গর্ভে সন্তান ধারণের উপযুক্ত ক্ষেত্র তৈরি করে।

এ সংস্কার সাধারণত মুসলমান নারীসমাজেই প্রচলিত। টাঙ্গাইলের মেয়েরা আদ্যঋতুর প্রথম দিন দরজার আড়ালে বসে বেগুনপাতায় তিন লোকমা ভাত খায়। রংপুরের মেয়েরা আদ্যঋতুর তৃতীয় দিনে কলাগাছের ধুলা দিয়ে ঘরের দেয়ালে তিনটি দাগ কেটে তা থেকে দেড়টি দাগ মুছে ফেলে। আবার নাটোরের  চলন বিলঅঞ্চলের মেয়েরা আদ্যঋতুর দ্বিতীয় দিনে ঘরের দেওয়ালে রজোরক্তের তিনটি দাগ কেটে তা থেকে একটি দাগ মুছে ফেলে। ফরিদপুরেও এ আচার পালিত হয়। ভারতের বাইগা মেয়েদের মধ্যেও এ আচার প্রচলিত আছে। তারা আদ্যঋতুর তৃতীয় দিনে ডান হাতের তৃতীয় আঙুল দিয়ে রজোরক্তের তিনটি দাগ দেয়।  [মোমেন চৌধুরী]